Latest: পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ: সাতক্ষীরার বাজারে দাম দ্বিগুণ 

Latest: পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ: সাতক্ষীরার বাজারে দাম দ্বিগুণ 

অতিবৃষ্টি ও বন্যায় সরবরাহে ঘাটতি দেখা দেওয়ায় নিজ দেশের বাজারে দাম বৃদ্ধি ঠেকাতে হঠাৎ করে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে ভারত। গতকাল সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টার দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

তবে কোনো অফিসিয়াল কাগজপত্র না পাওয়ার কথা জানিয়েছেন ভোমরার ব্যবসায়ী নেতারা। ক্ইতু খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে সাতক্ষীরার বাজারগুলোতে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ।  

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকালে ভোমরা স্থল বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
 
সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক পঙ্কজ কুমার দত্ত বলেন, ‘সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকালে ভারতীয় রপ্তানিকারক ও সিএন্ডএফ এজেন্ট আমাদের মৌখিকভাবে জানিয়েছেন যে, ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি করবে না। ভারত সরকার পেঁয়াজ রপ্তানি করতে কাস্টমসকে নিষেধ করেছেন বলেও জানিয়েছে আমাদের। এদিকে আমাদের অনেক আমদানিকারকের বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানির জন্য এলসি খোলা রয়েছে। এ ঘোষণার কারণে আমরা বিপাকে পড়েছি।’ 

পঙ্কজ কুমার দত্ত আরও বলেন, ‘আমরা তাদের বলেছি, আমাদের যেসব এলসি খোলা রয়েছে সেই পেঁয়াজগুলো অন্তত রপ্তানি করুক। আমাদের খোলা এলসির বিপরীতে বহু ট্রাক পেঁয়াজ নিয়ে সড়কে দাঁড়িয়ে রয়েছে। এখন যদি তারা পেঁয়াজ না দেয়, তাহলে আমাদের পেঁয়াজ পচে যাবে। এ নিয়ে মহা চিন্তায় আছি।’

এদিকে সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর বড় বাজারে দুই সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ১০ থেকে ১৫ টাকা। 

পেঁয়াজ কিনতে আসা শহরের মুনজিতপুর এলাকার বাসিন্দা আনিচুর রহমান জানান, গত সপ্তাহে পেঁয়াজের দাম ছিলো ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি। আজ সেই পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ টাকা। 

তালা উপজেলার জেঠুয়া বাজারে খুচরা পেঁয়াজ ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম জানান, গ্রামাঞ্চালের খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ। 

ভোমরা স্থল বন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম জানান, সোমবার বিকাল থেকে ভোমরা স্থল বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে যায়। ফলে সকাল থেকে ভারতীয় কোনো পেঁয়াজের গাড়ি বাংলাদেশে আসেনি। ভারত সরকারের নির্দেশে পেয়াজ রপ্তানি বন্ধ হলেও অফিসিয়াল কোনো নির্দেশনা জানাতে পারেননি ঘোজাডাঙ্গার ব্যবসায়ী বা কাস্টমস কর্মকর্তারা। 

সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের কোষাধ্যক্ষ মাকসুদ খান বলেন, ‘গত ১৩ তারিখ পর্যন্ত ভারতীয় রপ্তানিকারকরা ২৫০ থেকে ৩০০ ডলারে পেঁয়াজ রপ্তানি করছেন। এতে তাদের লোকসান হওয়ায় তারা পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে। তবে, পেঁয়াজের রপ্তানি মূল্য বৃদ্ধি করে তারা খুব দ্রুতই আবারও পেঁয়াজ রপ্তানি শুরু করবে।’

ভোমরা স্থলবন্দরের শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব কর্মকর্তা মহসিন হোসেন জানান, ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে গত এক সপ্তাহে (গত ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত) ৫৩৩ ট্রাকে পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে ১২ হাজার ৪৩৭ মেট্রিক টন। 

গতকাল সোমবার সকাল থেকে আজ মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত কোনো ভারতীয় পেঁয়াজের ট্রাক বন্দর দিয়ে প্রবেশ করেনি বলেও জানান তিনি।

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here