Latest: বগুড়ায় রুয়েট শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

Latest: বগুড়ায় রুয়েট শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশ:  ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:৩০

বগুড়ার ধুনটে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষার্থী হাফিজুর রহমানকে (১৯) কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে তার সৎভাই।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ৭টার দিকে উপজেলার চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের বিশ্বহরিগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সম্পর্কিত খবর

জানা গেছে, উপজেলার বিশ্বহরিগাছা গ্রামের মৃত আজাহার আলীর ছেলে হাফিজুর রহমান রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষার্থী। করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় কয়েক মাস ধরে তিনি নিজ বাড়িতে মা ও ভাইয়ের সঙ্গে অবস্থান করছেন। পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে তার সৎভাই ফজর আলী (৫০) দীর্ঘদিন ধরে হাফিজুর রহমান ও তার মা-ভাইকে অত্যাচার করে। সৎভাই ফজর আলীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন হাফিজুর রহমান ও তার পরিবারের লোকজন।

একই আঙিনায় বসবাসের সুবাদে বুধবার সকালের দিকে ফজর আলী ও তার স্ত্রী মেরিনা খাতুন চুলা জ্বালিয়ে ধোঁয়ার কুÐলী হাফিজুরের ঘরের ভেতর দিতে থাকে। এ সময় ধোঁয়ার কারণে তাদের শ্বাসকষ্ট হয়। তখন এ ঘটনার প্রতিবাদ করেন হাফিজুর রহমান ও তার বড় ভাই ঢাকা মেডিক্যালের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ফজলুল হক অর্ক। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ফজর আলী ও তার লোকজন হাফিজুরের একটি কাঁঠাল গাছ কেটে ক্ষতি করে।

এ ঘটনা নিয়ে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে ফজল আলী ও তার লোকজন কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হাফিজুর রহমানকে আহত করে। এ সময় ভাইকে রক্ষা করতে গেলে ফজলুল হক অর্ককে পিটিয়েছেন তারা।

আহত হাফিজুর রহমান ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে চিকিৎসা নিয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ওই অভিযোগে ফজর আলী, তার স্ত্রী মেরিনা খাতুন ও মেয়ে সনিয়া খাতুনকে আসামি করা হয়েছে। ঘটনার পর ফজর আলী ও তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।

বগুড়ার ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা জানান, অভিযোগটি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

পূর্বপশ্চিমবিডি/অ-ভি

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here