Latest: Pakistan violated ceasefire: মোদী সরকারের সীমান্ত ‘ব্যর্থতা’, ৯ মাসে ৩১৮৬ বার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন পাকিস্তানের! – highest in 17 years, pakistan violated ceasefire across loc 3186 times in 9 months

Latest: Pakistan violated ceasefire: মোদী সরকারের সীমান্ত ‘ব্যর্থতা’, ৯ মাসে ৩১৮৬ বার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন পাকিস্তানের! – highest in 17 years, pakistan violated ceasefire across loc 3186 times in 9 months

হাইলাইটস

  • গত ৯ মাসে সীমান্ত রেখায় পাকিস্তান যেভাবে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করছে, সেই পরিসংখ্যান রীতিমতো চমকে ওঠার মতো।
  • এতবার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন গত ১৭ বছরের মধ্যে রেকর্ড।
  • যদিও এ নিয়ে কড়া প্রত্যাঘাতও করেছে ভারতীয় সেনা। তবে পাকিস্তানের এই হামলায় ভারতের ১০ জন জওয়ানও শহিদ হয়েছেন।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে চিন, অন্যদিকে পাকিস্তান। সীমান্ত নিয়ে বেজায় চাপে নরেন্দ্র মোদীর সরকার। আর এই পরিস্থিতিতে নরেন্দ্র মোদীর সরকারের জন্যে আরও বিড়ম্বনার তথ্য সামনে এল। গত ৯ মাসে সীমান্ত রেখায় পাকিস্তান যেভাবে সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করছে, সেই পরিসংখ্যান রীতিমতো চমকে ওঠার মতো। মঙ্গলবার সংসদে কেন্দ্রীর প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ৭৭৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য ভারত পাকিস্তান সীমানার। আর সেই সীমান্ত বরাবর গত ১ জানুয়ারি থেকে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট ৩,১৮৬ বার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান।

শুধু তাই নয়, এতবার সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন গত ১৭ বছরের মধ্যে রেকর্ড। তথ্য অনুযায়ী, শুধু অগস্ট মাসেই জম্মু ও কাশ্মীর সীমান্ত বরাবর ২৪২ বার সংঘর্ষ বিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। যদিও এ নিয়ে কড়া প্রত্যাঘাতও করেছে ভারতীয় সেনা। তবে পাকিস্তানের এই হামলায় ভারতের ১০ জন জওয়ানও শহিদ হয়েছেন।

পাকিস্তানের একের পর এক অতর্কিত হামলার বিষয়ে ইসলামাবাদকে জানানো হয়েছে একাধিক বার। কিন্তু কাজের কাজ কিছু হয়নি। মৌখিক আশ্বাস মিললেও পাকিস্তানের তরফে কোনও ভাবেই এই হামলা বন্ধ করা বা কমানো হয়নি। বরং দিনদিন তা বাড়ানো হয়েছে। শুধু সীমান্ত নয়, জম্মু ও কাশ্মীরের ১৯৮ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমানায় মোট ২৪২ বার কামান, মর্টার হামলাও চালিয়েছে পাক সেনা। গত বছর জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল ঘোষণা করা অর্থাৎ ৩৭০ ধারা রদ করার পর পাকিস্তানের হামলা আরও বেড়েছে বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্য, জম্মু-কাশ্মীর থেকে সংবিধানের ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার পর থেকেই অপ্রত্যাশিত ভাবে পাকিস্তানের তরফে সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা বেড়ে গিয়েছিল। ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক উত্তেজনার মধ্যে সীমান্তে পাক গোলাগুলি একদিনের জন্যও বন্ধ নেই। গত বছরের অগস্ট থেকে অক্টোবর পর্যন্ত এই তিন মাসে নিয়ন্ত্রণরেখা (LoC)-য় ৯৫০টি সংঘর্ষ বিরতির ঘটনা ঘটেছিল। তখন শহিদ হয়েছিলেন অন্তত পক্ষে তিন জওয়ান। এবারের পরিসংখ্যান আরও মারাত্মক।

এ প্রসঙ্গে বলে রাখা যাক, জম্মু-কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণা করার পর থেকেই উপত্যকাকে অশান্ত করতে একের পর এক জঙ্গি হামলা চালিয়েছে লস্কর-ই-তইবা, হিজবুল মুজাহিদিন-সহ বেশ কয়েকটি জঙ্গি সংগঠন। গত বছরই জাকির মুসার উত্তরসূরি তথা আল-কায়দার কাশ্মীর শাখার প্রধান হামিদ লেলহারিকে খতম করে ভারতীয় সেনা। এবছরও একের পর এক জঙ্গি নেতাকে ধরা বা খতম করা হলেও কাশ্মীরে পাকিস্তানের সংঘর্ষ বিরতি এক মুহূর্তের জন্যে থেমে নেই।

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here