Latest: bjp leaders controversial statement: ফেক নিউজের কারণেই লকডাউনে বাড়ি ফিরছিলেন পরিযায়ীরা! আজব দাবি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর – central minister g. kishan reddy’s controversial statement on migrant workers

Latest: bjp leaders controversial statement: ফেক নিউজের কারণেই লকডাউনে বাড়ি ফিরছিলেন পরিযায়ীরা! আজব দাবি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর – central minister g. kishan reddy’s controversial statement on migrant workers

হাইলাইটস

  • তাঁদের নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারও যে কতটা উদাসীন, তার প্রমাণ মিলল শ্রম মন্ত্রকের ভূমিকায়।
  • লকডাউনের মাঝে কতজন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে, তা নিয়ে শ্রম মন্ত্রকের কাছে কোনও তথ্যই নেই বলে গতকালই সংসদে জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সন্তোষ কুমার গাঙ্গওয়াড়।
  • এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের রাজ্যমন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি দাবি করলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের এভাবে উদভ্রান্তের মতো বাড়ি ফিরতে চাওয়ার কারণ ফেক নিউজ!

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: সেই মার্চ মাসে লকডাউন ঘোষণার পর থেকেই তাঁদের দুর্দশা শুরু। করোনা পরিস্থিতিতে দেশের গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল ‘পরিযায়ী শ্রমিক’দের নিদারুণ জীবন। লকডাউনের ফলে তাঁদের বাড়ি ফিরতে না পারা, খাদ্য সংকট, বাড়ি ফিরতে হাজার-হাজার কিলোমিটার হাঁটা, খিদের জ্বালায় মৃত্যু এই সবই এখন যেন ইতিহাস হয়ে গিয়েছে! আর তাঁদের নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারও যে কতটা উদাসীন, তার প্রমাণ মিলল শ্রম মন্ত্রকের ভূমিকায়। লকডাউনের মাঝে কতজন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে, তা নিয়ে শ্রম মন্ত্রকের কাছে কোনও তথ্যই নেই বলে গতকালই সংসদে জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সন্তোষ কুমার গাঙ্গওয়াড়। আর এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের রাজ্যমন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি দাবি করলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের এভাবে উদভ্রান্তের মতো বাড়ি ফিরতে চাওয়ার কারণ ফেক নিউজ!

তৃণমূল সাংসদ মালা রায় এ বিষয়ে প্রশ্ন করেছিলেন সংসদে। সেই প্রশ্নের উত্তরেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দাবি করেন, ‘লকডাউনে ফেক নিউজের কারণেই পরিযায়ী শ্রমিকরা উদভ্রান্তের মতো বাড়ি ফিরতে চেয়েছিলেন। বিশেষত তাঁরাই খাদ্য, পানীয় জল, স্বাস্থ্য ও জীবিকা নিয়ে চিন্তায় ছিলেন। কেন্দ্রীয় সরকার এই সব বিষয়গুলির উপর নজর রেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। সব মানুষের জন্যে খাদ্য, স্বাস্থ্য পরিষেবা, জল, ওষুধ মতোর জিনিসগুলি নিশ্চিত করা হয়েছিল।’

উল্লেখ্য, গত সোমবার থেকে ১৮ দিনের জন্য শুরু হয়েছে সংসদের বাদল অধিবেশন। করোনা মহামারীর মাঝেই করোনা সংক্রান্ত সমস্ত নিয়ম মেনেই প্রতিদিন সকাল ৯ টায় অধিবেশন শুরু হচ্ছে। সোমবার দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সংসদে ভাষণ দেন একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সেখানেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সন্তোষ কুমার গাঙ্গওয়াড় বলেন, লকডাউনের মাঝে কতজন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে, তা নিয়ে শ্রম মন্ত্রকের কাছে কোনও তথ্যই নেই। এবার অপর কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ‘হাতিয়ার’ করলেন ফেক নিউজকে।

করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনের সময় বাড়ি ফিরতে গিয়ে কত পরিযায়ী শ্রমিক মারা গিয়েছেন, প্রতিটি রাজ্যে কতজন শ্রমিক ফিরেছেন, সে সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীদের কাছে তথ্য চাওয়া হয়। মৃত পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য কি কোনও ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করছে কেন্দ্রীয় সরকার, জানতে চাওয়া হয় তাও। আর তাতেই একের পর এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানাচ্ছেন, কতজন পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে, সে সম্পর্কে কোনও তথ্যই নেই। তাই ক্ষতিপূরণের প্রশ্ন উঠছে না। আবার অপর মন্ত্রী জানালেন, ফেক নিউজই যত নষ্টের গোড়া।

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here