Latest: Bill Gates: করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদনে মুখ্য ভূমিকা নেবে ভারত! আস্থা বিল গেটসের – bill gates said, india may roll out covid vaccine in huge volumes next year

Latest: Bill Gates: করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদনে মুখ্য ভূমিকা নেবে ভারত! আস্থা বিল গেটসের – bill gates said, india may roll out covid vaccine in huge volumes next year

হাইলাইটস

  • অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কয়েক ধাপ পরীক্ষায় পাশ করতেই পুনের সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া সংস্থাটির সঙ্গে হাত মিলিয়েছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বিল গেটস!
  • তিনি আশা ব্যক্ত করলেন, ভারতই করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের উৎপাদনে মুখ্য ভূমিকা পালন করবে।
  • গেটসের অনুমান, ২০২১ সালের প্রথম তিন মাসের মধ্যে পজিটিভ বার্তা সকলের কাছে চলে আসবে। বিভিন্ন দেশের বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন এই সময়ের মধ্যে চূড়ান্ত পর্যায়ে চলে আসবে।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিন ইতোমধ্যে সাড়া জাগালেও গোটা বিশ্ব এখনও পর্যন্ত আশার আলো দেখছে অক্সফোর্ডের করোনা-ভ্যাকসিনকে ঘিরেই। ইতোমধ্যেই বেশ কয়েক ধাপ ‘পাশ’ করে গিয়েছে অক্সফোর্ডের সেই ভ্যাকসিন। মাঝে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা উঠলেও অচিরেই সেই আশঙ্কা বন্ধ হয়েছে। আর অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কয়েক ধাপ পরীক্ষায় পাশ করতেই পুনের সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া সংস্থাটির সঙ্গে হাত মিলিয়েছিলেন বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বিল গেটস! এবার তিনি আশা ব্যক্ত করলেন, ভারতই করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের উৎপাদনে মুখ্য ভূমিকা পালন করবে।

সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে বিল গেটস বলেন, ‘সারা পৃথিবীর মানুষ চাইছে দ্রুত ভারতে করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদন শুরু হোক। ভারতের সংস্থাগুলি ভ্যাকসিন উৎপাদনে শীর্ষস্থানে থাকবে। এর আগেও তার প্রমাণ মিলেছে। করোনা ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রেও আমরা ভারতের কাছ থেকে সহযোগিতা চাই।’ আশাপ্রকাশ করে তিনি বলেন, ভারতে উৎপাদিত করোনা ভ্যাকসিন খুব কার্যকরী ও নিরাপদ হবে। কিন্তু কবে মিলবে করোনা ভ্যাকসিন? গেটসের অনুমান, ২০২১ সালের প্রথম তিন মাসের মধ্যে পজিটিভ বার্তা সকলের কাছে চলে আসবে। বিভিন্ন দেশের বেশ কয়েকটি ভ্যাকসিন এই সময়ের মধ্যে চূড়ান্ত পর্যায়ে চলে আসবে।

উল্লেখ্য, মারণ ভাইরাস করোনার ভ্যাকসিন ভারতের বাইরেও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সুষ্ঠুভাবে পৌঁছে দিতে GAVI এবং বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের সঙ্গে চুক্তি করে ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। যাতে পৃথিবীর বিভিন্ন অনুন্নত দেশগুলির গরিব মানুষের কাছে অত্যন্ত সস্তায় ভ্যাকসিনটি পৌঁছে দেওয়া যায়, সেই কারণেই এই চুক্তি করা হয়। সেই সূত্রেই জানা যায়, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের প্রতিটি ডোজের দাম হতে পারে ৩ ডলার, অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় মাত্র ২২৫ টাকা! শুধু ভারত নয়, বিশ্বের আরও ৯২টি দেশে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব নিয়েছে সিরাম। আর সেই কারণেই ১০ কোটি ভ্যাকসিন তৈরির জন্য GAVI এবং বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন ১৫ কোটি ডলার তুলে দিয়েছে ভারতের এই সংস্থার হাতে।

এ প্রসঙ্গে সিরামের কর্ণধার আদর পুনাওয়ালা বিল গেটসকে ধন্যবাদও দিয়েছিলেন। তিনি জানিয়েছিলেন, তাঁর সংস্থা GAVI এবং বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের সঙ্গে চুক্তি করেছে। ভ্যাকসিনের ১০০ মিলিয়ন ডোজ দ্রুত প্রস্তুত করার উদ্দেশ্যে এই চুক্তি করা হয়েছে। সংস্থার কর্ণধার হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, ভ্যাকসিনের দাম যতটা সম্ভব কম রাখা হবে, যাতে সকলেই সেই ভ্যাকসিন নিতে পারেন। এবার আবার গেটস ভ্যাকসিন নিয়ে সেই ভারতেরই প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন।

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here