Latest: স্বামীর পাওনা টাকা তুলতে বারবার ব্যর্থ হয়ে চিকিৎসক স্ত্রীর আত্মহত্যা

Latest: স্বামীর পাওনা টাকা তুলতে বারবার ব্যর্থ হয়ে চিকিৎসক স্ত্রীর আত্মহত্যা

মহামারি করোনাভাইরাসের সময়ে সম্মুখসারির যোদ্ধা ছিলেন স্বামী। প্রায় চার মাস আগে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার। পরে সরকারের কাছে চিকিৎসক স্বামীর পাওনা টাকা তুলতে বারবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন তার স্ত্রী। এতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন সোনিয়া শর্মা নামের ওই নারী। হতাশার একপর্যায়ে অবশেষে গত সোমবার আত্মহত্যা করেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে পাঞ্জাবের অমৃতসরে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, সোনিয়া শর্মা নিজেও একজন চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ছিলেন পৌর করপোরেশনের একজন মেডিকেল অফিসার। তার স্বামীর নাম অরুণ শর্মা। তিনি অমৃতসর সিভিল হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। এই দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

আরও পড়ুন : ১০ বছরের নাবালিকার ক্ষত-বিক্ষত দেহ মিলল আলমারির ভিতর থেকে

শর্মা পরিবারের ঘনিষ্ঠ একজন বলেন, সরকারের কাছে স্বামীর পাওনা টাকা চেয়ে বারবার আবেদনের পরও ব্যর্থ হন সোনিয়া। এ নিয়ে বেশ হতাশায় ভুগছিলেন তিনি। তা থেকেই সোনিয়া আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

তবে ভারতের পাঞ্জাবের স্বাস্থ্য বিভাগ দাবি করছে, অরুণ শর্মার মৃত্যুর পর তার পরিবারকে ৫০ লাখ রুপি দেওয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ভারতের অবস্থান ওপরের দিকে। পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত ১ কোটি ৯৪ হাজার ৮০১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। আর মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৪৬ হাজার ৪১৪ জনের।

Source

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here