Latest: ৮০ লাখ টাকা ঋণ, তবুও চড়েন বিএমডব্লিউতে

Latest: ৮০ লাখ টাকা ঋণ, তবুও চড়েন বিএমডব্লিউতে

শোবিজ তারকাদের রাজনীতিতে যোগ দেয়া নতুন কিছু নয়। দেব, নুসরাত, মিমির মতই এবার রাজনীতিতে সদ্য পা রেখেছেন টলিউডের বিউটি গার্ল কৌশানি মুখার্জি। আবির্ভাবেই বিধানসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার টিকিট। বাকি তারকাদের মতো আগ্রহের কেন্দ্রে কৌশানিও। তিনি এবার কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী।

নির্বাচন কেন্দ্রে কৌশানির মূল প্রতিদ্বন্দ্বি বিজেপির প্রার্থী মুকুল রায়। কিন্তু কৌশানির নির্বাচনী লড়াইয়ের অন্যতম আকর্ষণ হলো- তার প্রেমিক বনি সেন গুপ্ত। কারণ তিনি পা রেখেছেন পদ্মশিবিরে। তবে রাজনৈতিক বিভেদ সম্পর্কে ছায়া ফেলবে না বলেই মনে করেন দুই তারকা।

গতকাল বুধবার তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের বিশাল বহর নিয়ে নির্বাচন কমিশনে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন কৌশানি। এসময় হলফনামায় নিজের উপার্জন এবং সম্পত্তির বিবরণও দেন এই অভিনেত্রী।

আরও পড়ুন : প্রচারে বেরিয়ে ‘পাওরি’ করলেন Nusrat Jahan? ভিডিও সংযুক্ত

২০১৯-২০ আর্থিক বর্ষে তার উপার্জন ছিল ১৩ লাখ ৫৮ হাজার ৫৭০ টাকা। এছাড়াও তার কাছে মোট ৫৬ গ্রাম স্বর্ণ রয়েছে। যার মূল্য দুই লাখ ৫২ হাজার ১৭০ টাকা। বিভিন্ন ব্যাংকে গচ্ছিত আছে ৪৯ হাজার ৭২ টাকা, ৫৬ হাজার ৩১০ টাকা এবং ৫ লাখ ২৭ হাজার ৪৮১ টাকা। স্থায়ী আমানত রাখা আছে সাড়ে ৬ লাখ টাকা।

এনএসএস, ডাকঘর এবং জীবন বিমায় কৌশানি বিনিয়োগ করেছেন ৯ লাখ ৩৪ হাজার ৮০ টাকা।

২০১৮ সালে কৌশানি বিএমডব্লিউ গাড়ি কিনেছেন। মহার্ঘ্য গাড়িটির মূল্য ৩৬ লাখ টাকা। গাড়ি কেনার জন্য ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছেন ২২ লাখ ৫০ হাজার ৫২৪ টাকা।

কৌশানির নামে কোনো কৃষিজমি বা দোকানঘর নেই। কোনো বাড়ির বিবরণও দেননি তিনি। জানিয়েছেন, গত বছর একটি ফ্ল্যাট বুক করেছেন। ফ্ল্যাটটির দাম ৮০ লাখ টাকা। আর এই নতুন ফ্ল্যাটের জন্য কৌশানি ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছেন ৫৮ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৫ টাকা।

কৌশানির মোট অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৬৩ লাখ ২১ হাজার ১১৩ টাকা। স্থাবর সম্পত্তির মূল্য ৮০ লাখ টাকা।

অভিনেত্রীর পাশাপাশি কৌশানি নিজের পরিচয় দিয়েছেন একজন সমাজকর্মী হিসেবেও। উপার্জনের উৎস হিসেবে উল্লেখ করেছেন অভিনয় থেকে প্রাপ্ত পারিশ্রমিক।

২০১৩ সালে কৌশানি বাণিজ্যে সাম্মানিক স্নাতক হন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ হেরম্ব চন্দ্র কলেজ থেকে।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here