Latest: health & fitness News : হোটেল, রেস্তোরাঁ, জিম থেকেই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, শঙ্কা নয়া গবেষণায়! – restaurants gyms hotels carry highest covid 19 superspreader risk study

Latest: health & fitness News : হোটেল, রেস্তোরাঁ, জিম থেকেই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ, শঙ্কা নয়া গবেষণায়! – restaurants gyms hotels carry highest covid 19 superspreader risk study

হাইলাইটস

  • নিউ নর্মালে স্বাভাবিক হয়েছে জনজীবন। রাজ্যে লোকাল শুরু হতেই ভিড়ের চেনা ছবি ফিরে এসেছে।
  • এই ভাবে চলতে থাকলে করোনা সংক্রমণ কয়েকগুণ বেড়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন চিকিৎসক মহল।
  • পাশাপাশি খুলে গিয়েছে হোটেল, রেস্তোরাঁ ও জিমন্যাসিয়ামও। এর ফলে কোভিড সংক্রমণ আরও বা়ড়ছে।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: নিউ নর্মালে স্বাভাবিক হয়েছে জনজীবন। রাজ্যে লোকাল শুরু হতেই ভিড়ের চেনা ছবি ফিরে এসেছে। এই ভাবে চলতে থাকলে করোনা সংক্রমণ কয়েকগুণ বেড়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন চিকিৎসক মহল। পাশাপাশি খুলে গিয়েছে হোটেল, রেস্তোরাঁ ও জিমন্যাসিয়ামও। এর ফলে কোভিড সংক্রমণ আরও বা়ড়ছে। এমনটাই জানাচ্ছে নতুন এসমীক্ষা। গত মার্চ থেকে মে মাস পর্যন্ত আমেরিকার বিভিন্ন শহরে গবেষণা চালিয়ে এই উদ্বেগজনক তথ্য পেয়েছেন স্ট্যানফোর্ড ও নর্থওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়। গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান-জার্নাল ‘নেচার’-এর সাম্প্রতিক সংখ্যায়।

গবেষকরা নিউ নর্মাল শুরু হওয়ার পর থেকে আমেরিকার বিভিন্ন শহরে প্রায় ৯ কোটি ৮০ লক্ষ মানুষের মোবাইল ফোনে তাঁদের গতিবিধি সংক্রান্ত ডেটা সংগ্রহ করেন। সেখান থেকেই তাঁরা জানতে পেরেছেন ওই শহরগুলিতে গত মার্চ থেকে মে মাসের মধ্যে কোথায় কোথায় গিয়েছিলেন, তাঁরা সেই সব জায়গায় কত ক্ষণ থেকেছিলেন, তাঁরা কত জনের সঙ্গে মিশেছিলেন এবং কাদের কাদের সঙ্গে দেখা করেছিলেন বা তাঁদের কাছাকাছি পৌঁছেছিলেন। সেই সব তথ্যের পর তাঁরা জানতে পারেন হোটেল, রেস্তরাঁ ও জিমন্যাসিয়ামে যাঁরা গিয়েছিলেন তাঁদের মধ্যে ৮৫ শতাংশ মানুষ করোনা সংক্রমণে আক্রান্ত হয়েছেন। গবেষণাপত্র জানাচ্ছে, শিকাগো শহরের ১০ শতাংশ জায়গায় সেই পূর্বাভাস ৮৫ শতাংশ সঠিক বলে প্রমাণিত হয়েছে।
বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন এই গবেষণা আগামী দিনে কোন কোন এলাকায় কী ভাবে কত সংখ্যায় ধাপে ধাপে হোটেল, রেস্তরাঁ ও জিম ফের খোলা যেতে পারে, তাতে জমায়েতের উপর কতটা কী কড়াকড়ি থাকা প্রয়োজন তার রূপরেখা তৈরি করতে সহায়ক হয়ে উঠতে পারে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, করোনা সংক্রমণকে পুরোপরি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পূর্বের মতো হোটেল, রেস্তরাঁ, জিমগুলিকে একেবারে বন্ধ রাখতে হবে?

গবেষকরা জানিয়েছেন, একেবারে বন্ধ রাখার প্রয়োজন নেই। তবে, বাধ্যতামূলক ভাবে মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ববিধি, কম জমায়েত এই সব মেনে চললে রাশ টানা সম্ভব হবে। যাঁরা রুটি-রুজি বা অন্যান্য প্রয়োজনে অল্প একাধিক জায়গায় ঘোরাঘুরি করতে হয় তাঁদের সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। শুক্রবার ভারতে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যাটা আরও খানিকটা কমল। তবে, চিন্তা কমল না। কারণ দৈনিক সংক্রমণের পাশাপাশি ক্রমশ কমছে দৈনিক সুস্থতার সংখ্যাটাও। দীর্ঘদিন বাদে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাজয়ীর সংখ্যাটা কমে ৫০ হাজারেরও নিচে নেমে এসেছে। আর সেটাই চিন্তায় রাখছে স্বাস্থ্যমন্ত্রককে।যদিও বিশেষজ্ঞদের ধারণা অ্যাক্টিভ কেস আগের তুলনায় অনেক কম হওয়ার কারণেই সুস্থতার সংখ্যা কমছে। আবার স্বস্তি আছে মৃত্যুর পরিসংখ্যানে। স্বাস্থ্যমন্ত্রক বলছে,গত এপ্রিল মাস থেকে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩০ শতাংশ কমেছে।

এই সময় ডিজিটালের লাইফস্টাইল সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here