Latest: বেশি জল পানে বাড়তে পারে সমস্যা

Latest: বেশি জল পানে বাড়তে পারে সমস্যা

বেশি জল পানে বাড়তে পারে সমস্যা - West Bengal News 24

দাপট দেখাচ্ছে গরম, গরমে রোদে বেরোলেই পেয়ে বসছে তেষ্টা। অনেকে তেষ্টা পেলেই ঠান্ডা জল পেট পুরে পান করেন। আপনি যদি এই কাজটি নিয়মিত করে থাকেন তাহলে এখনই তা বদলে ফেলুন।

জল পানের উপকারিতা অনেক কিন্তু এটি খুব বেশি একসময় পান করলে সমস্যাও হতে পারে। ডায়েটিশিয়ান থেকে ডাক্তার প্রত্যেকেই সুস্থ থাকতে বা ওজন কমাতে পর্যাপ্ত জল পানের পরামর্শ দেন। তবে পানি যদি ঠিকঠাক নিয়ম মেনে না পান করেন তাহলে গুরুতর শারীরিক সমস্যায় ভুগতে হতে পারে।

একজন প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির দিনে দুই থেকে তিন লিটার জল খাওয়া উচিত। খুব গরম হলে আধা লিটার বাড়ানো যেতে পারে। তবে তা একসঙ্গে নয়। গোটা দিনে সময়মত অল্প অল্প করে জল পান করা উচিত। একসঙ্গে অতিরিক্ত পানি পান করলে লিভারে চাপ পড়তে পারে। এতে পরবর্তীকালে লিভার খারাপ বা পেটের অসুখ দেখা দেয়ার সম্ভাবনা থাকে।

প্রয়োজনের তুলনায় বেশি জল পান করলে হাইপোনাট্রেমিয়ার শিকার হতে পারেন আপনি অর্থাৎ শরীর থেকে কমে যাবে সোডিয়ামের পরিমাণ। যার ফলে গা গোলানো, বমি বমি ভাব, মাথা ধরা, শ্বাস কষ্ট, পেশিতে টান, দুর্বলতা দেখা দেবে। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি জল পান করলে একটা সময়ের পর সবসময়ের জন্য পেট ফুলে থাকবে আপনার। এজন্য যখনই তেষ্টা পাবে তখনই প্রয়োজনমতো জল পান করুন।

আরো পড়ুন :কিডনি রোগ কেন হয়? প্রতিকার জেনে নিন

কিডনিতে সমস্যা থাকলে ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া প্রয়োজনের বেশি জল পান করবেন না। কারণ শরীরের ভিতরের পরিচ্ছন্নতার দায়িত্ব কিডনির, কিডনি অনাবশ্যক ক্ষতিকারক পদার্থসমূহ শরীর থেকে দূর করার গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে। কিডনি যদি সেই কাজ করতে ব্যর্থ হয় তাহলে শরীরের ভিতর জমা হতে থাকবে দূষিত পদার্থ। তাই কিডনির অবস্থা বুঝেই জল পান করা উচিত।

অনেকেই জল ছাড়া খাবার খেতে পারেন না। কিন্তু জানেন কি, খেতে খেতে জল খাওয়ার অভ্যাস ক্ষতিকারক। উৎসেচকের ঘনত্ব কমে যায়, যার ফলে হজমে সমস্যা হতে পারে। খাওয়ার বেশ কিছুক্ষণ আগে পরিমাণমত জল পান করুন। যার ফলে আপনার পেট ভরা থাকবে, কম খাবার খেলেই পেট ভরে যাবে। এতে হজম ভালো হবে।

সারাদিনে কাজের ধরন অনুযায়ী জল পান করা উচিত। কেউ যদি খুব কঠোর পরিশ্রম করে থাকেন তাহলে গরমে ঘামের পরিমাণও অধিক হবে। সেক্ষেত্রে জলের পরিমাণ তিন বোতল থেকে আরেক বোতল বাড়ানোই যায়। যারা অফিস করেন এবং সারা দিনই কাটে এসির ঘেরাটোপে তাদের ক্ষেত্রে ৮ গ্লাস জল পানের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। কারণ এসি শরীরের আর্দ্রতা টেনে নেয়।

রোগা হওয়ার জন্য অন্যতম অস্ত্র জল পান। কারণ ফ্যাট জাতীয় যৌগ ঘাম এবং প্রস্রাবের সঙ্গে শরীরের বাইরে বেরিয়ে যায়। রোগা হতে চাইলে নিয়ম করে জল পান করুন।

 

 Read on the original site 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here