Latest: Hilsa fish: পদ্মার ইলিশ পেয়ে বঙ্গ বাজারে খুশির হাওয়া, চিন্তায় রাখছে দাম – hilsa fish from padma arrives in west bengal market

Latest: Hilsa fish: পদ্মার ইলিশ পেয়ে বঙ্গ বাজারে খুশির হাওয়া, চিন্তায় রাখছে দাম – hilsa fish from padma arrives in west bengal market

হাইলাইটস

  • সুখবর আগেই এসেছিল। এ বার বাজারে চলে এল পদ্মার রুপোলি শস্য।
  • এ বছর প্রথম বাংলাদেশের ইলিশ পেয়ে হইচই পড়ে গেল হাওড়া-সহ বিভিন্ন বাজারে।
  • তবে ইলিশ এলেও দাম চিন্তাতেই রাখছে মাছভাতের বাঙালিকে। কারণ দাম হাজারের নীচে নামবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: সুখবর আগেই এসেছিল। এ বার বাজারে চলে এল পদ্মার রুপোলি শস্য। এ বছর প্রথম বাংলাদেশের ইলিশ পেয়ে হইচই পড়ে গেল হাওড়া-সহ বিভিন্ন বাজারে। তবে ইলিশ এলেও দাম চিন্তাতেই রাখছে মাছভাতের বাঙালিকে। কারণ পদ্মার ইলিশের দাম হাজারের নীচে নামবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

সোমবার সন্ধ্যায় পেট্রাপোল সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের ইলিশ এই বছর প্রথম বার ঢুকেছে পশ্চিমবঙ্গে। রুপোলি শস্যের মধ্যে পদ্মার ইলিশকেই স্বাদে, মানে উৎকৃষ্টতম হিসেবে গণ্য করা হয়। ধীরে ধীরে কলকাতা ও শহরতলির এবং আশপাশের আরও বিভিন্ন খুচরো বাজারে আসতে শুরু করেছে সেই মাছ। রসনাতৃপ্তির দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসানের আশায় রয়েছে ইলিশপ্রিয় বহু বাঙালি।

তবে পেট্রাপোল দিয়ে বাংলাদেশের ইলিশ রাজ্যে এলেও বুধবারের আগে খোলা বাজারে আসছে না। আকারে ছোট হলেও ৯০০ থেকে ১০০০ টাকার নীচে মিলবে না বাংলাদেশের ইলিশ। বৃহস্পতিবারা অরন্ধন। তাই খোলা বাজারে ইলিশের দাম এমনিতেই চড়া। বাংলাদেশের ইলিশের প্রবেশ দাম আরও বাড়িয়ে দেবে। হাওড়া ফিশ মার্কেটের আরতদার বিজয় গুপ্তা বলেন, বারো চোদ্দ টন ইলিশ এসেছে। আরত থেকে খোলা বাজারে যেতে এক দিন সময় দিতেই হবে। আরতেই ৭০০-৭৫০ গ্রামের ইলিশ ৯০০-১০০০ টাকা দাম উঠেছে। ৯০০ গ্রামের ইলিশ ১২০০ টাকা কিলো। মাছ এক কিলো বা তার বেশি হলে ১৪০০ টাকার নীচে মিলবে না। মঙ্গলবার খোলা বাজারে যে ইলিশ বিক্রি হয়েছে তা স্টোরের। এর মধ্যে রায়দিঘি, দীঘার মাছও রয়েছে, আবার মায়ানমারের ইলিশ ও রয়েছে।

এলো রে…পদ্মার ইলিশ এলো, প্রথমে ২০ টন

সোমবার রাজ্যে ঢুকেছে ২০ টন পদ্মার ইলিশ। আগামী এক মাস ও পার থেকে এপারে লরি লরি ইলিশের আমদানি হবে বলেই পেট্রাপোল স্থল বন্দর সুত্রে জানা গিয়েছে। এ বার সব মিলিয়ে প্রায় দেড় হাজার টন ইলিশ এ পার বাংলায় পাঠানোর অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

ফিশ ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের রাজ্য সম্পাদক সৈয়দ আনোয়ার মকসুদ বলেছেন, ‘সোমবার সন্ধ্যায় চারটি লরিতে মোট ২০ টন ইলিশ বাংলাদেশ থেকে পশ্চিমবঙ্গে ঢুকেছে। এই ইলিশ মঙ্গলবার বিকেল থেকে কলকাতার খুচরো বাজারে পাওয়া যাবে।’ তাঁর কথায়, ‘৫০০ গ্রাম থেকে এক কেজি ওজনের ইলিশ এসেছে। পাইকারি বাজারে ৭০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা দরে বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা।’

তবে খুচরো বাজারে এর দাম কী রকম হবে, তা নিয়ে এখনও ব্যবসায়ীরা নির্দিষ্ট কিছু জানাননি। ভোজনরসিক বাঙালি ও পদ্মার ইলিশের মধ্যে ব্যবধান হয়ে দাঁড়াতে পারে চড়া দাম, এমন আশঙ্কা থাকছে। এমনিতেই করোনা পরিস্থিতি ও দীর্ঘ লকডাউনের জেরে সাধারণ নিম্নবিত্ত, নিম্ন-মধ্যবিত্ত, মধ্যবিত্ত পরিবারের একটা বড় অংশের আর্থিক অবস্থা প্রাক্-কোভিড পরিস্থিতির মতো নেই। এই অবস্থায় পদ্মার ইলিশের দাম আকাশছোঁয়া হলে ক’জন তার স্বাদ নিতে পারবেন, সেটা প্রশ্ন।

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন।

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here