Latest: Kolkata suicide case: কলকাতায় আত্মঘাতী দম্পতি, বাড়িতেই উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ – Couple Died By Suicide, Hanging Bodies Recovered From Kolkata

Latest: Kolkata suicide case: কলকাতায় আত্মঘাতী দম্পতি, বাড়িতেই উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ – Couple Died By Suicide, Hanging Bodies Recovered From Kolkata

হাইলাইটস

  • শহরে অস্বাভাবিক মৃত্যু হল এক দম্পতির।
  • দক্ষিণ কলকাতার চারু মার্কেট এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে তাঁদের ঝুলন্ত দেহ।
  • পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের পর অনুমান করা হচ্ছে যে, তাঁরা আত্মহত্যা করেছেন।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: শহরে অস্বাভাবিক মৃত্যু হল এক দম্পতির। দক্ষিণ কলকাতার চারু মার্কেট এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে তাঁদের ঝুলন্ত দেহ। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের পর অনুমান করা হচ্ছে যে, তাঁরা আত্মহত্যা করেছেন।

লেক গার্ডেন্স উড়ালপুলের পাশে কেএমডিএ আবাসনের পাশে ভাড়া থাকতেন অরিজিত্‍‌ দত্ত ও তাঁর স্ত্রী সম্পূর্ণা দত্ত। বৃহস্পতিবার অনেক বেলা পর্যন্ত ঘরের দরজা না-খোলায় প্রতিবেশীরা বাড়ির মালিককে বিষয়টি জানান। এরপর সবাই মিলে দরজায় ধাক্কা মেরেও কোনও সাড়া না-পাওয়ায় সন্দেহ হয়। জানলা দিয়ে উঁকি মেরে তাঁরা দেখতে পান গলায় ফাঁক দেওয়া অবস্থায় ঝুলছে অরিজিতের দেহ। এরপরই পুলিশে খবর দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় চারু মার্কেট থানার পুলিশ। যান কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের কর্তারা। পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকে। অরিজিত্‍‌ ও সম্পূর্ণার ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়।

১২ বছর আগে ‘খুন’ হওয়া মহিলাকে জীবিত উদ্ধার উত্তরপ্রদেশে!

পুলিশ জানিয়েছে, দুজনের গলাতেই ফাঁস লাগানো ছিল। ঘটনার খবর পেয়ে সেখানে যান সম্পূর্ণার বাবা কৃষ্ণ সরকার। তিনি জানান, অরিজিতের সঙ্গে তাঁর মেয়ের বিয়ে হয় তিন বছর আগে। অরিজিত্‍‌ অ্যাপ ক্যাব চালাতেন। তাঁদের একটি সন্তানও হয়েছিল। তবে চার মাস বয়সে শিশুটি মারা যায়। মেয়ে-জামাইয়ের মধ্যে সম্পর্ক খুবই ভালো ছিল বলে জানিয়েছেন কৃষ্ণবাবু। তাঁর দাবি, আত্মহত্যা করার মতো কোনও কারণই ঘটতে পারে না। তবে প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ এটিকে আত্মহত্যার ঘটনা বলেই মনে করছে। একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদেহটিকে ময়নাতদন্তে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ স্পষ্টভাবে জানা সম্ভব হবে।

‘আমাদের কাজ চাই’, মোদীর জন্মদিনেই পালিত হচ্ছে ‘জাতীয় বেরোজগার দিবস’!

মনের জানালা

আপনি কি হতাশ? বিষণ্ণ বোধ করছেন? নিজেকে একলা মনে হচ্ছে খুব?

প্লিজ একটা ফোন করুন। একবার।

কলকাতা পুলিশের ১০০ ডায়াল করে সমস্যার কথা জানালে পুলিশও উপযুক্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সন্ধান দিতে পারে।

শহরের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান

লাইফলাইন ফাউন্ডেশন: (০৩৩) ৪০৪৪-৭৪৩৭, ২৪৭৪-৪৭০৪/৫৮৮৬/৫২৫৫

ক্রিস্টাল মাইন্ডস: ৯২৩০৬১৬৭৫০, ৯৯০৩৩০২৬২১

শিশু কমিশনের উদ্যোগ

করোনা লকডাউনের জেরে পরিবারের আর্থিক সঙ্কট, নিকটজনের অসুস্থতা বা মৃত্যু মানসিক চাপ তৈরি করছে শিশুমনে। শিশুদের মানসিক সুস্থতা বজায় রাখতে সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য নিখরচার হেল্পলাইন চালু করল পশ্চিমবঙ্গ শিশু অধিকার রক্ষা কমিশন।

সাইকোলজিস্ট/কাউন্সেলর

যশবন্তী শ্রীমানি ৮৭৭৭০৯৪৮৩৫ (সকাল ১১টা থেকে ১টা এবং বিকেল ৪টে থেকে সন্ধ্যা ৭টা)

সুবর্ণা সেন ৯৮৩০৪৩৪৬৮৫ (২৪X৭)

কনসালট্যান্ট সাইকিয়াট্রিস্ট

হেল্পলাইন: ইন্ডিয়া: ইন্টারন্যাশনাল বাইপোলার ফাউন্ডেশন: +91-8888817666

জীবন আস্থা হেল্পলাইন (টোল ফ্রি): 1800 233 3330
AASRA: 09820466726, 022-27546669/27546667/104

রোশনি ফাউন্ডেশন: 040-66202001, 040-66202000

চোখ রাখুন এই লিংকে: https://indianhelpline.com/SUICIDE-HELPLINE/

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন।

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here