Latest: তৃণমূলে আড়াআড়ি ভাঙন ধরে গিয়েছে, তার প্রমাণ পিকে! কেন এমন কথা দিলীপের মুখে, Dilip Ghosh criticizes Prashant Kishor rushes to TMC leader’s house to stop broken,

Latest: তৃণমূলে আড়াআড়ি ভাঙন ধরে গিয়েছে, তার প্রমাণ পিকে! কেন এমন কথা দিলীপের মুখে, Dilip Ghosh criticizes Prashant Kishor rushes to TMC leader’s house to stop broken,

তৃণমূলে আড়াআড়ি বিভাজন! প্রমাণ দিচ্ছেন পিকে

দিলীপ ঘোষ বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস এখন আড়াআড়ি বিভাজনের মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছে। তাই দলের ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরকে নামতে হয়েছে ময়দানে। তিনি বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিক্ষুব্ধ নেতাদের বুঝিয়ে ভাঙন রোখার চেষ্টা চালাচ্ছেন। কিন্তু কোনও ফল হবে না। তৃণমূলে যে আড়াআড়ি বিভাজন শুরু হয়েছে, তার প্রমাণ দিচ্ছেন স্বয়ং পিকেই।

বিজেপি নেতাদেরও ভাঙানোর চেষ্টা প্রশান্ত কিশোরের

বিজেপি নেতাদেরও ভাঙানোর চেষ্টা প্রশান্ত কিশোরের

প্রশান্ত কিশোরকে একহাত নিয়ে শুধু তৃণমূলে ভাঙন রোখার অপচেষ্টা চালাচ্ছেন বলে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি দিলীপ ঘোষ, প্রশান্ত কিশোর বিজেপি নেতাদেরও ভাঙানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন। কোনও কূলকিনারা না পেয়ে তৃণমূলের ভোটকৌশলী ভাঙন ধরানোর রাস্তা নিয়েছেন। একদিকে নিজের দল ভাঙচে, তা আটকাতে না পেরে বিরোধীদের ভাঙানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

তৃণমূল পার্টিটা আবর্জনায় ভরে গিয়েছে, বিজেপিতে আসুন

তৃণমূল পার্টিটা আবর্জনায় ভরে গিয়েছে, বিজেপিতে আসুন

দিলীপ ঘোষ এদিন আরও বলেন, তৃণমূলে কেউ কাজ করতে পারছেন না। যাঁরা কাজ করতে চান, তাঁরা বিজেপিতে চলে আসুন। তাঁর কথায়, তৃণমূল পার্টিটা আবর্জনায় ভরে গিয়েছে। তাই এই পার্টিটাকে যারা সরাতে চান, বাংলায় যাঁরা পরিবর্তন আনতে চান, তাঁদের জন্য বিজেপিই সছিক মাধ্যম।

শুভেন্দুর সঙ্গে কথা পিকের, তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য দিলীপের

শুভেন্দুর সঙ্গে কথা পিকের, তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য দিলীপের

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভাঙন রুখতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে উত্তরবঙ্গে ছুটেছিলেন প্রশান্ত কিশোর। এখন আবার শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে ধন্দ তৈরি হয়েছে। তাই শুভেন্দু অধিকারীর মান ভাঙতে সম্প্রতি প্রশান্ত কিশোর গিয়েছিলেন তাঁর বাড়িতে। সেখানে শুভেন্দুর সঙ্গে দেখা না হলেও ফোনে কথা হয়েছে দু-জনের। তারপরই দিলীপের তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য।

বিজেপি পাল্টা দিতে ওঁত পেতেছে! প্রমাণ দিলীপ-ভাষ্যে

বিজেপি পাল্টা দিতে ওঁত পেতেছে! প্রমাণ দিলীপ-ভাষ্যে

তবে একা শুভেন্দু নন, আরও অনেক নেতা-বিধায়ক-মন্ত্রী তৃণমূলে মুখভার করে রয়েছেন। অনেকে বিদ্রোহী হয়েছেন। ফলে ২০২১ নির্বাচনের আগে তৃণমূলে একটা ভাঙন প্রবণতা দীর্ঘদিন ধরে চলছে। করোনা-লকডাউন পিরিয়ডে বিজেপিকে ভেঙেছে তৃণমূল। বিজেপি এবার পাল্টা দিতে ওঁত পেতে বসে রয়েছে। তার প্রমাণ মিলল দিলীপ-ভাষ্যে!

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here