Latest: কুসংস্কারের বলি! কেরোসিন মেখে আগুন পোহাতে গিয়ে পুড়ে মৃত্যু বৃদ্ধার

Latest: কুসংস্কারের বলি! কেরোসিন মেখে আগুন পোহাতে গিয়ে পুড়ে মৃত্যু বৃদ্ধার

ঝাড়গ্রাম: কুসংস্কারের বলি হলেন জঙ্গলমহলের এক বৃদ্ধা! গেঁটে বাতের ব্যথা উপশমের জন্য গায়ে কেরোসিন মাখতেন তিনি। আর তার জেরেই ঘটল চরম বিপত্তি।

বৃহস্পতিবার সকালে ঝাড়গ্রাম থানার গজাশিমূল গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। মৃত বৃদ্ধার নাম ছুটু শীট (৭৪)। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শীতকালে গেঁটে বাতের ব্যথায় কাহিল হয়ে পড়তেন ছুটু। তাই ব্যথার জায়গায় নিয়মিত কেরোসিন মাখতেন। ছুটুর পরিবারের সকলেই দিনমজুরি করেন।

এদি‌ন দিনমজুরির কাজে পরিবারের সদস্যরা বাড়ির বাইরে ছিলেন। পড়শিরা জানিয়েছেন, উনুনে আগুন পোহাচ্ছিলেন ছুটু। আচমকা তাঁর শাড়িতে আগুন ধরে যায়। নিমেষে আগুন ছড়িয়ে পড়ে শরীরে। ছুটুর চিৎকারে পড়শিরা ছুটে এসে জল ঢেলে আগুন নেভান। ততক্ষণে নিথর হয়ে যায় বৃদ্ধার শরীর।

আরও পড়ুন : রাস উৎসবে খোল বাজিয়ে জঙ্গলমহলে জনসংযোগ বিধায়কের

পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। ছুটুর ছেলে সনাতন বলেন, ‘‘বহুকাল আগে কোনও এক কবিরাজ মাকে গেঁটে বাতের উপশমের জন্য কেরোসিন মাখার পরামর্শ দিয়েছিলেন। আমরা বারণ করলেও তিনি শুনতেন না। সেই কেরোসিন মাখাই কাল হল।’’

ছুটুর নাতি ঋষি শীট বলেন, ‘‘আমরা দিনমজুরির কাজে বাড়ির বাইরে ছিলাম। পড়শিদের কাছে খবর পেয়ে ছুটে বাড়িতে গিয়ে দেখি সব শেষ হয়ে গিয়েছে।’’ ঋষি বিবাহিত। এদিন বাড়িতে ঘটনার সময়ে ছিল ঋষির দশ বছরের মেয়ে রীতা ও পাঁচ বছরের ছেলে কিংশুক। চোখের সামনে বাবার ঠাকুমাকে পুড়ে মারা যেতে দেখে সন্ত্রস্ত তারা।

আরও পড়ুন : ‘গোলাপ বাড়ি’র চিত্তরঞ্জন মজুমদার মজে আছেন গোলাপের চর্চায়

ঝাড়গ্রামের বিশিষ্ট অস্থিরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. মৃণালকান্তি সাহা বলেন, ‘‘কেরোসিন মেখে বাতের উপসম কখনই সম্ভব নয়। কেউ এমন করলে সেটা কুসংস্কার ছাড়া আর কিছুই নয়।’’



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here