Latest: ঝাড়গ্রামে জমি-বিবাদে যুবক খুন, অভিযুক্ত এনভিএফ কর্মী ফেরার

Latest: ঝাড়গ্রামে জমি-বিবাদে যুবক খুন, অভিযুক্ত এনভিএফ কর্মী ফেরার

ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম শহরে ক্রিকেট খেলা চলাকালীন খেলার মাঠ থেকে টেনে নিয়ে গিয়ে এক যুবককে লোহার রড দিয়ে মাথা থেঁতলে খুন করার অভিযোগ উঠল এক এনভিএফ কর্মীর বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার দুপুরে ঝাড়গ্রাম শহরের বাছুরডোবা এলাকার ঘটনা। পুলিশ জানিয়েছে, নিহত তকবির আলি (২৮) শহর লাগোয়া রাধানগর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি জমিজমার কারবার করতেন। ঘটনার পরেই গা ঢাকা দিয়েছে খুনের অভিযুক্ত বিশ্বজিৎ প্রধান। বিশ্বজিতের বাড়ি শহরের গাইঘাটা এলাকায়। সে পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড় থানার এনভিএফ কর্মী। তবে বিশ্বজিতও জমির দালালির কারবারে যুক্ত।

আরও পড়ুন : এসটি তালিকা ভুক্তি সহ ২৬ দফা দাবিতে ঝাড়গ্রাম ডিএম অফিসে কুড়মিদের অবস্থান বিক্ষোভ

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে তকবিরের সঙ্গে বিশ্বজিতের বিবাদ ছিল। কয়েকদিন আগে দু’জনের মধ্যে তুমুল গোলমাল হয়। এদিন শহরের বাছুরডোবা ইয়ং ইলেভেন মাঠে প্রিমিয়ার লিগের ক্রিকেট খেলা চলছিল। দর্শকদের মধ্যে ছিলেন তকবির। বিশ্বজিতও খেলা দেখতে এসেছিল। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দু’জনের মধ্যে পুরনো ঘটনাকে কেন্দ্র করে বচসা শুরু হয়। ওই সময়ে বিশ্বজিৎ তকবিরকে লক্ষ্য করে ওয়ান সাটার থেকে গুলি চালিয়ে দেয় বলে অভিযোগ।

গুলি অবশ্য তকবিরের গায়ে লাগেনি। তকবির পালাতে থাকেন। বিশ্বজিৎ পিছু ধাওয়া করে একটি ধারালো ভারী লোহার রড দিয়ে তকবিরের মাথায় আঘাত করে। তকবিরের মাথা, মুখ ও চোয়াল ফেটে রক্তক্ষরণ হতে থাকে। এমন ঘটনায় আতঙ্কে খেলার মাঠ ছেড়ে দর্শক ও খেলোয়াড়েরা পালিয়ে যান। খেলা বন্ধ হয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তকবিরকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা ঝাড়গ্রাম জেলা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যান।

আরও পড়ুন : সর্ডিহায় স্টিল এক্সপ্রেসের স্টপেজ প্রত্যাহার, প্রতিবাদে রেল অবরোধ এলাকাবাসীর

তকবিরকে কলকাতায় রেফার করা হয়। কিন্তু পথেই তাঁর মৃত্যু হয়। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মেদিনীপুর পুলিশ মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনার পরে উত্তেজিত জনতা শহরের গাইঘাটা এলাকায় বিশ্বজিতের বাড়িতে ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দেন। বিক্ষোভ দেখান রাধানগর এলাকার বাসিন্দারা। এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, বিশ্বজিতের বিরুদ্ধে এর আগেও নানা অপরাধমূলক কাজের অভিযোগ রয়েছে।

ঘটনায় কেউ এখনও ধরা পড়েনি। স্থানীয়রা জানান, হামলা চালিয়ে একটি গাড়িতে করে বিশ্বজিৎ পালিয়ে যায়। এমন ঘটনায় উদ্বিগ্ন এলাকাবাসী অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here