Latest: লোকাল ট্রেন চালুর দাবিতে সরব ঝাড়গ্রাম নাগরিক উদ্যোগ

Latest: লোকাল ট্রেন চালুর দাবিতে সরব ঝাড়গ্রাম নাগরিক উদ্যোগ

ঝাড়গ্রাম: দক্ষিণ-পূর্ব রেলের খড়্গপুর-টাটা শাখায় এখনও লোকাল ট্রেন চালু হল না। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে রেল কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে ঝাড়গ্রাম স্টেশন চত্বরে লোকাল ট্রেন চালুর দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচিও হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে ধারাবাহিক অবস্থান ও প্রতিবাদ কর্মসূচি জারি রেখেছে অরাজনৈতিক সংগঠন ঝাড়গ্রাম নাগরিক উদ্যোগ। নাগরিকদের এই সংগঠনটি স্টেশন চত্বরে প্ল্যাকার্ড-ফেস্টুন নিয়ে অবস্থান করে জনমত গঠন করছেন।

এই শাখায় লোকাল ট্রেন চালানোর দাবিতে রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলকে চিঠি দিয়েছেন ঝাড়গ্রামের বিজেপি সাংসদ কুনার হেমব্রম। কিন্তু এখনও রেলের তরফে সমর্থক কোনও আশ্বাস মেলেনি।

রাজ্য সরকারের প্রস্তাব অনুযায়ী দক্ষিণ-পূর্ব রেলের হাওড়া-খড়্গপুর শাখায় লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। আদ্রা শাখাতেও ট্রেন চলছে। কিন্তু খড়্গপুর-টাটা শাখায় লোকাল ট্রেন কবে চলবে সে ব্যাপারে আশার কথা শোনাতে পারেননি রেল কর্তৃপক্ষ। রেল সূত্রের দাবি, করোনা পরিস্থিতির কারণে রাজ্য সরকারের দেওয়া সূচি অনুযায়ী নির্দিষ্ট কিছু শাখায় লোকাল ট্রেন চালানো শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন : ঝাড়গ্রাম রাজবড়ি ট্যুরিস্ট কমপ্লেক্সের পঞ্চম বর্ষপূর্তিতে কেক কেটে উদযাপন

খড়্গপুর-টাটা শাখায় লোকাল ট্রেন চালানোর জন্য এখনও রাজ্যের তরফে রেলকে জানানো হয়নি। খড়্গপুর-টাটা শাখার মধ্যে রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার নিমপুরা, কলাইকুণ্ডা ও খেমাশুলি এবং ঝাড়গ্রাম জেলার সরডিহা, বাঁশতলা, ঝাড়গ্রাম, খাটখুরা ও গিধনির মতো স্টেশনগুলি। ওই শাখায় রয়েছে ঝাড়খণ্ড রাজ্যের ঘাটশিলা, গালুডি, ধলভূমগড়ের মতো বিভিন্ন পর্যটনকেন্দ্র, ব্যবসা-বাণিজ্যের কেন্দ্র এবং শিল্প সমৃদ্ধ এলাকা। তাই করোনা আবহে ট্রেন বন্ধ থাকায় ওই শাখার বহু নিত্যযাত্রী সমস্যায় পড়েন। এখন লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হলেও জঙ্গলমহলের এই এলাকা দুয়োরানি হয়ে থাকায় হতাশ নিত্যযাত্রীরা।

ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র সুব্রত সাহা বলেন, ‘‘রেল চালানোর বিষয়টি কেন্দ্র সরকারের এক্তিয়ারভুক্ত। এবং এ ব্যাপারে রেল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। রেল মনে করলে ট্রেন চালাতে পারে। সেটা না করে কুনারবাবুরা রাজনীতি করছেন।’’ কুনারের পাল্টা খোঁচা, “লোকসভা ভোটে জঙ্গলমহলে হারের জন্য বোধহয় তৃণমূলের ক্ষমতাসীন রাজ্য সরকার লোকাল ট্রেন চালানোর অনুমতি দিচ্ছে না। জঙ্গলমহলের মানুষ তৃণমূলকে ভোট না দেওয়ায় তাঁদের দুর্ভোগে ফেলার জন্য লোকাল ট্রেন চালুর জন্য রাজ্যের তরফে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হচ্ছে না।”

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here