Latest: ঝাড়গ্রামের বনপথে হাতির হানায় মৃত্যু বাইক আরোহীর

Latest: ঝাড়গ্রামের বনপথে হাতির হানায় মৃত্যু বাইক আরোহীর

ঝাড়গ্রাম: ভাইপোর বাইকের পিছনে চেপে বাড়ি ফেরার পথে জঙ্গল রাস্তায় বুনো হাতির হামলায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির।

রবিবার সন্ধ্যায় ঝাড়গ্রাম জেলার মানিকপাড়া বনাঞ্চলের গোবিন্দপুর জঙ্গলের রাস্তায় ঘটনাটি ঘটে। বন দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতের নাম রবীন্দ্রনাথ মাহাতো ওরফে রবি (৫৫)। তিনি ঝাড়গ্রাম ব্লকের লোধাশুলি অঞ্চলের গোলবান্ধি গ্রামের বাসিন্দা। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন টিয়াকাটি গ্রামে মোরগ লড়াইয়ের মেলায় গিয়েছিলেন পেশায় রাজমিস্ত্রি রবি।

সেখানে নিজের মোরগ লড়তে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। সন্ধ্যায় ভাইপো প্রদীপ মাহাতোর মোটর বাইকের পিছনে বসে বাড়ি ফিরছিলেন রবি ও তাঁর দাদা বছর আঠান্নোর কৃষ্ণ। গোবিন্দপুর জঙ্গল রাস্তা দিয়ে ফেরার সময় একটি বুনো হাতির সামনে পড়েন তাঁরা। বাইক ফেলে কোনও মতে পালিয়ে বাঁচেন প্রদীপ ও তাঁর বাবা কৃষ্ণ। রবিও প্রাণ বাঁচাতে ছুটতে গিয়ে পড়ে যান। হাতিটি তাঁকে নাগালে পেয়ে শুঁড়ে তুলে আছড়ে পিষে মারে।

আরও পড়ুন : ঝাড়গ্রাম রাজবড়ি ট্যুরিস্ট কমপ্লেক্সের পঞ্চম বর্ষপূর্তিতে কেক কেটে উদযাপন

পরে বনকর্মী ও পুলিশ গিয়ে দেহটি উদ্ধার করে। এমন ঘটনায় পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। গোলবান্ধি গ্রামের বাসিন্দারা জানালেন, পেশায় রাজমিস্ত্রি রবি নিয়মিত মরশুমে মোরগ লড়তে নিয়ে যেতেন। টিয়াকাটির মাঠে শীতের এই সময়ে বড় মাপের মোরগ লড়াইয়ের মেলা বসে। এদিন সেখানে নিজের মোরগ নিয়ে গিয়েছিলেন রবি। কিন্তু ফেরার পথে হাতির আক্রমণে বেঘোরে প্রাণ হারাতে হল তাঁকে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ঝাড়গ্রাম জেলার বিভিন্ন বনাঞ্চলে দল হাতি ও নিঃসঙ্গ হাতির উপদ্রবে বাসিন্দাদের জেরবার অবস্থা। ফসল ও সম্পত্তির ক্ষতি করে হাতিরা। জঙ্গল লাগোয়া গ্রামবাসীরা দৈনন্দিন কাজে বনপথে যাওয়ার সময় হাতির মুখোমুখি হন। প্রাণ হাতে নিয়ে বাসিন্দাদের চলাফেরা করতে হয়। বাসিন্দারা বলছেন, এখন বারো মাসই হাতি এলাকায় ঘুরে বেড়ায়।

আরও পড়ুন : পেন্সিলের শিস খোদাই করে মেরির কোলে যিশুর প্রতিকৃতি বানালেন শিক্ষক

বন দপ্তরের আধিকারিকরা বলেন, “হাতিকে লোকালয় থেকে সরানোর জন্য বনকর্মী ও হুলাপার্টির লোকজন সব সময় কাজ করে চলেছেন। বিকেলের পরে জঙ্গলপথ এড়ানোর জন্য বাসিন্দাদের সব সময় সতর্ক করা হয়।

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here