Latest: ভোটের কাজে প্রধানশিক্ষকদের অব্যহতির দাবি

Latest: ভোটের কাজে প্রধানশিক্ষকদের অব্যহতির দাবি

ঝাড়গ্রাম: ভোটের দায়িত্ব থেকে প্রধানশিক্ষক ও প্রধানশিক্ষিকাদের অব্যহতির দাবি তোলা হল। ঝাড়গ্রামে স্টেট ফোরাম অফ হেডমাস্টার্স অ্যান্ড হেডমিস্ট্রেসেস-এর ঝাড়গ্রাম জেলা শাখার প্রথম বার্ষিক সম্মেলনে এই দাবি উঠল।

ঝাড়গ্রাম শহরের নেতাজি আদর্শ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আয়োজিত ওই সম্মেলনে হাজির ছিলেন ঝাড়গ্রাম জেলার বিভিন্ন স্কুলের ৬০ জন প্রধানশিক্ষক ও প্রধানশিক্ষিকারা। সংগঠনের জেলা সভাপতি মৃন্ময় হোতা জানান, সম্মেলনে শিক্ষা সংক্রান্ত প্রশাসনিক সংস্কারের দাবির পাশাপাশি, স্কুলগুলির পরিকাঠামোগত দাবি নিয়ে আলোচনা হয়।

ভোটের দায়িত্ব থেকে প্রধানশিক্ষক ও প্রধানশিক্ষিকাদের অব্যহতি দেওয়ার দাবি করা হয়েছে। কারণ, প্রতিটি স্কুলের ‘কি-হোল্ডার’ হলেন প্রধানশিক্ষক ও প্রধানশিক্ষিকারা। তাঁরা ভোটের দায়িত্ব চলে গেলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি পরিচালনায় সমস্যা হয়। এছাড়াও এদিন সম্মেলনে প্রধানশিক্ষক ও প্রধানশিক্ষিকারা দাবি করেন, করণিক ও শিক্ষাকর্মীদের শূন্যপদে নিয়োগ না-হওয়ায় বেশ কিছু স্কুলে শিক্ষকদেরই করণিকের বাড়তি দায়িত্ব সামলাতে হচ্ছে। এতে পঠনপাঠনের কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

আরও পড়ুন : কোনও জল্পনা নয়, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সমতুল পদ পেলেন শুভেন্দু

প্রধানশিক্ষকদের বেতন বৈষম্য দূর করা, স্কুলগুলিতে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ, একশো দিনের প্রকল্পে সরকারি ভাবে সাফাইকর্মী নিয়োগ সহ ২৭ দফা দাবি নিয়ে আলোচনা হয়। প্রদীপ জ্বালিয়ে সম্মেলনের সূচনা করেন জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শনক (মাধ্যমিক) সঞ্জয় চট্টোপাধ্যায়। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক (প্রাথমিক) শুভাশিস মিত্র।

বিশিষ্টজনদের মধ্যে ছিলেন সংগঠনের রাজ্য সভাপতি হরিদাস ঘটক, জেলা সম্পাদক তপনকুমার দে প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন পড়িহাটি বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক বিশ্বজিৎ সেনগুপ্ত ও গিধনি এলোকেশী বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক দেবলীনা দাশগুপ্ত।

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here