Latest: নন্দীগ্রামে ভাঙা হচ্ছে বিজেপি অফিস, উত্তপ্ত কাঁথিও

Latest: নন্দীগ্রামে ভাঙা হচ্ছে বিজেপি অফিস, উত্তপ্ত কাঁথিও

মেদিনীপুর জেলার ভূমিপুত্র শুভেন্দু অধিকারী। তিন সপ্তাহ হল তিনি বিজেপিতে এসেছেন দল ছেড়ে। আর তারপর থেকেই তৃণমূলের আক্রমণের মূল নিশানায় রয়েছেন তিনি। তৃণমূল ছাড়ার পর দেখা গিয়েছে বেশ কয়েকটি বিজেপির কার্যালয় ভাঙচুর হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরে।

গত শুক্রবার নন্দীগ্রামে বিজেপির জনসভা ছিল। হাজার হাজার মানুষ সেখানে যোগ দেন। তারপরই দেখা যায় নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর একটি কার্যালয়ে ব্যাপক ভাঙচুর হয়েছে। বিধায়ক পদ ছাড়ার পর শুভেন্দু ওই অফিস থেকেই কাজকর্ম করতেন নন্দীগ্রাম আসলে।

ওই কার্যালয় ভাঙার পর শুভেন্দুসহ বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা সোচ্চার হয়েছেন তৃণমূলের বিরুদ্ধে। তাঁদের অভিযোগ, তৃণমূলের মদতে দুষ্কৃতীরা একাজ করেছে। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে একেবারেই নির্লিপ্ত শুভেন্দু। রবিবার পুরুলিয়ায় রোড শো ছিল তাঁর।

সেখানে তিনি বিষয়টি নিয়ে বলেন,” পার্টি অফিস ভাঙচুর করে খুব ভালো কাজ করছে। যত ভাঙবে ততই মঙ্গল। আমাদের ভোট বাড়বে। গতবার ওখান থেকে ৮২ হাজার ভোটে জিতেছিলাম। সেই মার্জিন আরো বাড়বে।

কোন গোষ্ঠীর লোক ভাঙচুর করেছে সেটা সকলেই দেখেছেন। সংখ্যার নিরিখে তারা বেশি নয়। মানুষ আমাদের সঙ্গেই আছে। আরো বেশি ভোট পাব আমরা”।

আরও পড়ুন: আমার নামের আগে বিশেষণ বসানোই কি বাংলার সংস্কৃতি? : জেপি নাড্ডা

এর আগেও শুভেন্দুর কার্যালয়ে হামলার ঘটনা ঘটেছে। তখন বিষয়টি তিনি জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের কাছে। এমনকি বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর তিনি সোজা চলে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের কাছে। চেয়েছিলেন উপযুক্ত নিরাপত্তা।

এরপর কেন্দ্রীয় সরকার শুভেন্দুকে জেড ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দিয়েছে। নন্দীগ্রামে কার্যালয় ভাঙার পরে তিনি কি বিষয়টি ফের জানিয়েছেন কেন্দ্রকে? এ ব্যাপারে শুভেন্দু বলেন,” না, এবারে আর কিছু জানাইনি।

আগের বার গোটা বিষয়টি রিপোর্ট করেছিলাম কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে। মানুষ সব দেখতে পাচ্ছেন। আমাদের উপর যত আক্রমণ হবে, তত বেশি ভোট পাব আমরা”।

এদিকে নন্দীগ্রামের পাশাপাশি উত্তপ্ত হয়ে উঠল কাঁথি। এখানকার ভাজাচাউলিতে পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে রবিবার ব্যাপক ঝামেলা হয়েছে তৃণমূল এবং বিজিপির কর্মীদের মধ্যে। দু’পক্ষের সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। তাঁদের কয়েকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

একে অপরের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ এনে সরব হয়েছে। ঘটনার পর এলাকায় পুলিশ পিকেট বসানো হয়েছে। শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ছাড়ার পর নানা দিক থেকে অশান্তির খবর আসছে। ঝামেলায় জড়িয়ে পড়ছে বিজেপি এবং তৃণমূল দু’পক্ষ। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে সেখানে। আতঙ্কে রয়েছেন এলাকাবাসী।

 

সুত্র: প্রথম কলকাতা

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here