Latest: পঞ্চায়েত প্রধানের দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ বিজেপির

Latest: পঞ্চায়েত প্রধানের দুর্নীতির বিরুদ্ধে বিক্ষোভ বিজেপির

চাঁচল-২ ব্লকের ক্ষেমপুর গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতির অভিযোগে সোমবার বিজেপির তরফে এক বিক্ষোভ কর্মসূচির পাশাপাশি সাত দফা দাবি জানিয়ে এক স্বারকলিপি দেওয়া হয় প্রধানকে। এদিন বিজেপির কর্মসূচিকে ঘিরে যাতে কোনও গণ্ডগোল না হয় তার জন্য পঞ্চায়েত দপ্তরে বিরাট চাঁচল থানার আইসি সুকুমার ঘোষের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন ছিলেন।

এদিন বিক্ষোভ কর্মসূচি সহ গোটা ঘটনার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বিজেপির ১৬ নম্বর জেলা পরিষদ মণ্ডল সভাপতি ত্রিবেনী সাহা। মোট সাত দফা দাবি সমূহ জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধান নিজ ইচ্ছামত কাজ করছে পঞ্চায়েতে। এলাকায় বেশির ভাগই রাস্তা কাচা। জলের ব‍্যবস্থা বলতে হাতেগোনা কিছু সাব মার্সাল। রাজ‍্যে উন্নয়নের জোয়ার বইলেও ক্ষেমপুরে ছোঁয়া পড়েনি বলে দাবি তাঁর। এছাড়াও ত্রিবেনির অভিযোগ, প্রধানের গরহাজিরে এলাকাবাসী নানান কাজে সমস‍্যার সম্মুখীন হচ্ছে।

আরও পড়ুন : শুভেন্দু অধিকারির দুর্গাপুরের সভায় কে কে যোগ দেবেন, শুরু জল্পনা

বিজেপি নেতা ত্রিবেণী সাহা বলেন, ‘আদিবাসী অধ্যুষিত এই এলাকায় লাগামছাড়া দুর্নীতি চলছে। উন্নয়নের নজর নেই পঞ্চায়েতের। বেহাল এলাকার রাস্তাঘাট। নেই পানীয় জলের বন্দোবস্ত। বাধ্য হয়েই পথে নামতে হয়েছে।১০০ দিনের প্রকল্পে বেনিয়ম, আবাস যোজনায় কাটমানি নেওয়া, অবৈধ টেণ্ডার, শৌচাগার তৈরির টাকা আত্মসাতের মত একাধিক অভিযোগে গ্রাম পঞ্চায়েত দপ্তর ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি।

জেলা পরিষদের কৃষি সেচ ও সমবায় দপ্তরের কর্মাধ‍্যক্ষ এটিএম রফিকুল হোসেন বলেন, মমতা ব‍্যানার্জী সারা রাজ‍্যে উন্নয়ন করছে। বিজেপির চোখে পড়ে না সেই উন্নয়ন। পথশ্রী প্রকল্পের কাজ চালু হয়েছে। চলতি বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত সারা রাজ‍্যে বেশিরভাগ কাজ সম্পন্ন হবে। বিজেপির সাধারণ মানুষ লেলিয়ে দিয়ে পঞ্চায়েতে বিক্ষোভ করাচ্ছে বলে অভিযোগ রফিকুলবাবুর।

ক্ষেমপুর জিপির প্রধান শম্পারানি সিনহা তাঁর নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সব কিছু নিয়ম মেনেই হচ্ছে। তারপরেও বিজেপি পঞ্চায়েতের দুর্নাম করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন। বিজেপির অভিযোগ মিথ্যে ও ভিত্তিহীন।

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here