Latest: মমতার পা ভেঙেছে, মন ভাঙতে পারেনি: জয়া বচ্চন

Latest: মমতার পা ভেঙেছে, মন ভাঙতে পারেনি: জয়া বচ্চন

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের আগে কলকাতায় এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও সমাজবাদী পার্টির এমপি জয়া বচ্চন। তিনি বলেছেন, বিরোধীরা মমতার পা ভেঙেছে, কিন্তু মন ভাঙতে পারেনি। সোমবার কলকাতায় এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি। আনন্দবাজার।

|এর আগে রোববার সন্ধ্যায় কলকাতা বিমানবন্দরে পৌঁছান জয়া বচ্চন। এরপর মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের হয়ে সোমবার থেকেই নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন তিনি। তৃণমূল কংগ্রেস জানিয়েছে, টানা ৩দিন দলটির প্রচারে অংশ নেবেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী থেকে রাজনীতিকে পরিণত হওয়া এই এমপি।

বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূ নয়, তৃণমূলের হয়ে প্রচারে এসে সংবাদ সম্মেলনে নিজেকে ‘বাংলার মেয়ে’ হিসেবে তুলে ধরেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন। তিনি বলেন, ‘আমি জয়া বচ্চন। আগে জয়া ভাদুড়ি ছিলাম। বাবার নাম তরুণ কুমার ভাদুড়ি। আমরা প্রবাসী বাঙালি।’

আরও পড়ুন : মমতাদির জন্য ভালোবাসা ও সম্মান : জয়া বচ্চন

অন্য রাজ্য থেকে বিজেপি নেতাদের নির্বাচনী প্রচারে আসা নিয়ে শুরু থেকেই ‘বহিরাগত’ অভিযোগে আক্রমণ চালাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। সেখানে জয়ার প্রচারে অংশ নেওয়া নিয়ে যেন বিজেপি পাল্টা প্রশ্ন তুলতে না পারে, সেজন্য শুরুতেই ‘পরিচয়’ স্পষ্ট করে দিলেন জয়া।

সংবাদ সম্মেলনে স্পষ্ট বাংলা উচ্চারণে জয়া বলেন, ‘অভিয়ন করতে আসিনি। যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, পালন করতে এসেছি।’ এসময় বেশিরভাগ সময়ই বাংলায় কথা বলেন জয়া। শুধু তাই নয়, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘বাংলার মাটি, বাংলার জল’ গানের দু’টি লাইন পাঠও করেন তিনি।

জয়া বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে বাংলার গণতন্ত্র রক্ষার লড়াই একা লড়ছেন মমতা। তার মাথা ফাটিয়ে, পা ভেঙেও থামাতে পারেনি বিরোধীরা। ভাঙতে পারেনি হৃদয়। তিনি বাংলাকে শ্রেষ্ঠ রাজ্য হিসাবে গড়ে তুলতে চাইছেন। আমি জানি যে কাজটা উনি করতে চান, তা সম্পূর্ণ করবেন। মমতাকে যারা বাজে কথা বলছেন, তাদের জন্য একটাই কথা, লজ্জা, লজ্জা!’

সংবাদ সম্মেলনে জয়ার মাথায় ছিল সমাজবাদী পার্টির ‘লাল টুপি’। নিজের দলের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘অখিলেশ যাদব আমাকে বলেছিলেন, এ বারের বিধানসভা নির্বাচনে আমাদের সমাজবাদী পার্টি তৃণমূলকে সমর্থন করছে। আমাকে প্রচারে আসতে হবে। আমি খুব খুশি হয়েছি। অখিলেশ যাদব ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ।’

তিনি বলেন, ‘আমার ধর্মকে আমি কেড়ে নিতে দেব না। আমার গণতান্ত্রিক অধিকারকে কেড়ে নিতে দেব না। মমতা একজন নারী, যিনি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে একা লড়াই করছেন। নারীদের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ। সেটা তৈরি করেছেন মমতা।’

তবে তৃণমূলের হয়ে প্রচারে আসায় সোমবার জয়া বচ্চনের সমালোচনা করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেছেন, ‘বাংলার নতুন প্রজন্মের সঙ্গে জয়া বচ্চনের সম্পর্ক কী? তার নাম ক’জন জানেন?’

দিলীপের অভিযোগ, জয়া রাজ্যসভায় গিয়েছেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ হিসেবে। তিনি বাংলার মেয়ে হিসেবে সিনেমা করেছেন। তখন তিনি প্রেমে মত্ত ছিলেন। তবে এখন তিনি কোথায় রয়েছেন? তার সঙ্গে বাংলার কী সম্পর্ক জানি না? তিনি সাম্প্রতিক সময়ে বাংলার অবস্থা নিয়ে কিছু বলেননি, হঠাৎ এখানে এসে প্রচারে করতে শুরু করলেন।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here