Latest: সাত বছরেও হয়নি সার্ভিস রোড, প্রশ্নের মুখে পুরসভা

Latest: সাত বছরেও হয়নি সার্ভিস রোড, প্রশ্নের মুখে পুরসভা

ঝাড়গ্রাম: মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরেও ঝাড়গ্রাম শহরে উড়ালপুলের তলায় দু’দিকে সার্ভিস রোড তৈরি হয়নি। উড়ালপুলের তলায় দু’ধারে রাস্তা না থাকার দরুণ হয়রানির শিকার হন এলাকার ব্যবসায়ী থেকে সাধারণ মানুষ। বিজেপির তরফে অবশ্য প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলা হয়েছে, বিজেপি রাজ্যের ক্ষমতায় এলে ছ’মাসের মধ্যে উড়ালপুলের তলায় দু’ধারে সার্ভিস রোড তৈরি করা হবে।

এদিকে, উড়ালপুলের তলায় দু’দিকে সার্ভিস রাস্তা সাত বছরেও কেন তৈরি হয়নি সেই প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা। উড়ালপুলের তলায় সরু রাস্তা দিয়ে সাইকেল ও মোটর বাইকে যেতে গিয়ে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। ওই সরু রাস্তায় নর্দমার উপর ঢাকা দেওয়া কংক্রিটের স্ল্যাব গুলি উঁচু নিচু হয়ে রয়েছে। কয়েকটি ভেঙে গিয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই জল কাদায় বিপজ্জনক হয়ে যায় ওই গলিপথ। বেহাল রাস্তার জন্য ক্রেতা হারিয়ে বিপুল ক্ষতির মুখে পড়েছেন মেন রোড জুবিলি বাজারের বহু ব্যবসায়ী।

আরও পড়ুন : গোর্খারা নিশ্চিত থাকুন, পশ্চিমবঙ্গে NRC হচ্ছে না, দার্জিলিংয়ে বললেন অমিত শাহ

ঝাড়গ্রাম শহরের প্রধান রাস্তার মূল বিভাজিকা দক্ষিণ-পূর্ব রেলপথ। মেন রেল ক্রশিংয়ের তুমুল যানজটে আগে নাকাল হতেন শহরবাসী। উড়ালপুলের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হয় রাজ্যে তৃণমূলের সরকার ক্ষমতায় আসার পরে। রেল ও রাজ্য সরকারের যৌথ বরাদ্দে রেলের উদ্যোগে উড়ালপুলটি তৈরি করা হয়। ২০১৩ সালে উড়ালপুলে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু এখনও পর্যন্ত উড়ালপুলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়নি। মান্ধাতা পদ্ধতিতে চওড়া বিমের উপর উড়ালপুলটি তৈরি হওয়ার ফলে শিব মন্দির মোড় থেকে উড়ালপুলের তলায় দু’দিকের রাস্তা খুবই সরু হয়ে গিয়েছে।

সাত বছরেও হয়নি সার্ভিস রোড, প্রশ্নের মুখে পুরসভা - West Bengal News 24

উড়ালপুলের তলা দিয়ে লোকাল বোর্ড ও রেল মার্কেট যাওয়ার দু’দিকের রাস্তা চওড়া করার জন্য প্রশাসনিক উদ্যোগ নেওয়া হয় বছর সাতেক আগে। রাস্তা চওড়া করার জন্য জুবিলি বাজারের দু’পাশের দোকানগুলির কিছু অংশ ভাঙতে হবে। এ বিষয়ে সমীক্ষার পরে রাস্তা তৈরির জন্য দোকানগুলির প্রয়োজনীয় অংশ মাপজোক করে ভূমি দফতর। ক্ষতিপূরণের ভিত্তিতে ব্যবসায়ীরাও রাস্তার জন্য দোকান ছাড়তে রাজি। কিন্তু পাঁচ বার মাপজোক করেও এখনও ব্যবসায়ীদের থেকে জমি কেনা হয়নি। তাই রাস্তাও তৈরি হয়নি। জমি কেনার জন্য পাঁচ কোটি টাকা বরাদ্দও হয়।

আরও পড়ুন : ‘অনেকে বলছেন, পোড়া চপের ছবি এঁকেছেন মমতা, কিন্তু কিনবেন কে : Suvendu Adhikari

কিন্তু ব্যবসায়ীদের থেকে রাস্তার প্রয়োজনে জমি কেনা হয়নি এখনও। গত বছর অক্টোবরে ঝাড়গ্রামে প্রশাসনিক সভায় উড়ালপুলের সার্ভিস রাস্তা তৈরির জন্য পুরসভাকে নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপরেও রাস্তা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। পুরসভার এক আধিকারিক বলেন, “সার্ভিস রাস্তা তৈরির জন্য টেন্ডার ডাকা হয়েছিল। ভোট ঘোষণা হওয়ায় কোনও পদক্ষেপ করা যাচ্ছে না। ভোটের পরে রাস্তা তৈরির উদ্যোগ নেওয়া হবে।”



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here