Latest: জামবনির দত্তক গ্রামে সয়াবিনের খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিবির

Latest: জামবনির দত্তক গ্রামে সয়াবিনের খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিবির

জামবনি: ‘ট্রপিক্যাল ইনস্টিটিউট অফ আর্থ এনভারমেন্টাল রিসার্চ’ গবেষণা সংস্থার উদ্যোগে ঝাড়গ্রাম জেলার জামবনি ব্লকের জামডহরি গ্রামে প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যসম্মত খাদ্য প্রস্তুতকরণ প্রশিক্ষণ শিবিরের আয়োজন করা হয়। মূলত সয়াবিনের বীজ থেকে দুধ, দই, ছানা ও পনির প্রভৃতি স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাদ্য ও পানীয় তৈরির হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

এলাকার মহিলা সহ সত্তর জন গ্রামবাসী প্রশিক্ষণ নেন। গ্রামবাসীদের প্রায় ১৫ লিটার সয়া দুধ থেকে তৈরি করা দুধ ,পনির ও দই খাওয়ানোর ব্যবস্থাও করা হয়। এই ধরনের পুষ্টিকর খাবার গ্রামবাসীদের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপযুক্ত হবে বলে দাবি করেন সংস্থার প্রশিক্ষক ও গবেষকরা। সেই সঙ্গে প্রায় দশ কেজি সয়াবিন বীজ গ্রামবাসীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। যা থেকে প্রায় পঞ্চাশ লিটার সয়া দুধ তৈরি করা যাবে।

আরও পড়ুন : পাঞ্জাবকে পরাজিত করে শীর্ষ দুইয়ে দিল্লি

এই প্রশিক্ষণ শিবিরে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সম্পাদক অধ্যাপক প্রণব সাহু, ঝাড়গ্রাম রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ স্বামী ব্রহ্মেশ্বরানন্দ, জৈব কৃষি বিজ্ঞানী অধ্যাপক কাঞ্চনকুমার ভৌমিক ও ডক্টর চন্দন করন, শরৎ চট্টোপাধ্যায়, শিবনাথ পাত্র প্রমুখ। অধ্যাপক প্রণব সাহু বলেন, “জামডহরি গ্রামটি সংস্থার তরফে দত্তক নিয়ে এক বছর ধরে কৃষিভিত্তিক স্থায়ী অর্থনৈতিক ব্যবস্থা উন্নয়নের পাশাপাশি প্রোটিন খামার গড়ে তোলা এবং খাদ্য প্রস্তুত করণের মাধ্যমে গ্রামীণ স্বনির্ভর অর্থনৈতিক ব্যবস্থার দিশা দেখানো হয়েছে।

সেইসঙ্গে গ্রামবাসীদের পুষ্টিকর ও স্বাস্থ্যকর পানীয় ও খাদ্য সরবরাহ করা আমাদের মূল লক্ষ্য। তাই সয়াবিনের দুধ, ছানা, এবং পনির ইত্যাদি গ্রামবাসীদের দেওয়া হয় ও তৈরির পদ্ধতি শেখানো হয়।আগামী দিনে গ্রামের মাটিতে সয়াবিন চাষের বন্দোবস্ত করে তোলা হবে।” রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজ বলেন, “গ্রামবাসীদের আগ্রহ ও গ্রামীণ সম্পদকে কাজে লাগিয়ে আগামী দিনে বেলুড় মঠের সমাজসেবক শিক্ষণ মিশনের সহযোগিতায় নানা ধরনের খাদ্য প্রস্তুতকরণের প্রশিক্ষণ শিবির আয়োজন করা হবে।”



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here