Latest: West Bengal Assembly Election 2021 : লেডি হিটলারের হাত থেকে বেরোতে হবে : Suvendu Adhikari

Latest: West Bengal Assembly Election 2021 : লেডি হিটলারের হাত থেকে বেরোতে হবে : Suvendu Adhikari

খাসতালুকে বজ্র আক্রমণ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাসতালুক ভবানীপুরে দাঁড়িয়ে তাঁকেই তীব্র আক্রমণ করলেন শুভেন্দু অধিকারী। ‌ নির্বাচনী সভায় তিনি বললেন, ‘লেডি হিটলারের হাত থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। দুর্নীতিগ্রস্ত পরিবারের কাছ থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।’

বুধবার ভবানীপুরে বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষের সমর্থনে নির্বাচনী জনসভা করেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই সভায় দাঁড়িয়ে তিনি আক্রমণের নিশানা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই। শুভেন্দু বলেন, ‘ভাইপোর যাতায়াতের জন্য দুটো রাস্তা বন্ধ থাকে। অ্যাম্বুলেন্সে যেতে পারে না। একটা ফ্ল্যাট বাড়ি করতে হলেও ভাইপোর অফিসের অনুমতি লাগে।

থানায় গেলে পুলিশ ডায়েরি নেয় না। তাই, ভবানীপুরের মানুষের কাছে আবেদন করব, এই লেডি হিটলারের হাত থেকে আপনাদের বেরিয়ে আসতে হবে। দুর্নীতিগ্রস্ত পরিবারের হাত থেকে আপনাদের বেরিয়ে আসতে হবে।’ এদিন শুভেন্দু আরও বলেন, ‘গত লোকসভা নির্বাচনে ভবানীপুর এলাকায় বিজেপি প্রার্থী মাত্র সাড়ে তিন হাজার ভোটে পিছিয়ে ছিলেন। কিন্তু যে কেন্দ্রে মুখ্যমন্ত্রী ভোট দেন অর্থাত্‍ মিত্র ইন্সটিটিউশনের বুথে ৪৯৫ ফোটে তাঁর দল পিছিয়ে ছিল। আমি হলে রাজনীতি ছেড়ে দিতাম। নিজের পথে যদি পিছিয়ে থাকার পরে তিনি বুঝলেন এবার পরিস্থিতি মনে হয় সুবিধের নয়। তাই নন্দীগ্রামে গিয়ে দাঁড়ালেন।’ শুভেন্দুর আরও সংযোজন, ‘তিনি বললেন খেলা হবে।

আরও পড়ুন : করোনার স্তব্ধ হাওড়া-শিয়ালদহ শাখার বহু ট্রেন, দেখে নিন তালিকা

তিনি নাকি গোলকিপার। নন্দীগ্রামে বিজেপি প্রার্থী ভোট দিলেন সকাল ৭ :১৬ মিনিটে। আর তিনি বাড়ি থেকে বের হলেন দুপুর ১ : ৪৫ মিনিটে। ততক্ষণে সব খেলা শেষ। ৭০ শতাংশ ভোট হয়ে গিয়েছে। তিনি হিজাব পরে একটা বুথে দু’ঘণ্টা বসে ছিলেন।’ শুভেন্দু এদিন আরও বলেন,’আমি বলেছিলাম তোলাবাজ। আড়াই হাজার পুলিশ নিয়ে কাঁথিতে সভা করে ভাইপো বলল, তোর বাপকে ডেকে নিয়ে আয়। আমি বারুইপুরের সভায় করে ম্যাডোনা নারুলা কে, তা বলেছিলাম। কয়লার টাকা ব্যাংককে থাইল্যান্ডের যায়।

ওরা বলেছিল দুয়ারে সরকার। আমি প্রমাণ করে দিয়েছিলাম দুয়ারে সিবিআই।’ এদিন করোনা নিয়েও শুভেন্দুর আক্রমণের নিশানা ছিলেন মমতা। তিনি বলেন, ‘আট মাস তিনি করোনা নিয়ে চুপ করেছিলেন। তখন পিকের বুদ্ধিতে কখনও বাংলার গর্ব মমতা, কখনও দুয়ারে সরকার, কখনও দিদির দূত, এইসব করে বেড়িয়েছেন। আর এখন বলছেন কেন্দ্র ভ্যাকসিন দিচ্ছে না। স্বাস্থ্য রাজ্যের বিষয়। আমরা সরকার সরকার গড়লে প্রথম মিথ্যাশ্রী উপাধিটা তাঁকেই দেব।’

Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here