Latest: ‘বায়ডেন কি জিত হো, উনকি হার হা….’ মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বলিউডের ‘রিমিক্স’ – Kolkata24x7

Latest: ‘বায়ডেন কি জিত হো, উনকি হার হা….’ মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বলিউডের ‘রিমিক্স’ – Kolkata24x7

ওয়াশিংটন : করোনা আবহের মধ্যেই চলতি বছর ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের অনুষ্ঠান হতে চলেছে।

রিপাবলিকান পার্টির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ভোটের প্রচারে ময়দানে নেমে পড়েছেন ডেমোক্র‍্যাটিক দলের প্রার্থী জো বাইডেন। একদিকে করোনা মহামারী অন্যদিকে হোয়াইট হাউস দখলের লড়াই। সব মিলিয়ে লকডাউনের মধ্যেও আমেরিকা জুড়ে ভোটের প্রচারে ব্যস্ত এই দুই প্রধান দল।

তবে ট্রাম্পের হুংকার বা শাসানির মতো করে প্রচার নয়, বরং আমেরিকায় অবস্থিত ভারতীয় ভোটারদের নিজের দলে টানতে অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন ডেমোক্র‍্যাটিক দলের প্রার্থী জো বাইডেন। ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিকদের সমর্থন পেতে এবং তাঁদের কাছে টানতে এবার ভোটের প্রচারে বলিউডেের জনপ্রিয় রিমিক্স গানের ব্যবহার করছেন তিনি।

আর এই ভোটের প্রচারে তিনি বলিউডের সুপারহিট মুভি ‘ লগন’ এর ‘চ্যালে চলো’ গানের মিউজিক্যাল ভিডিও এর রিমিক্স ব্যবহার করছেন।

জানা গিয়েছে, সিলিকন ভ্যালি-ভিত্তিক বলিউড সিঙ্গার তিতলি বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাওয়া গানটির কথা এবং উদ্যোক্তা দম্পতি অজয় ​​এবং বিনিতা ভুটোরিয়া প্রকাশ করেছেন। ”চ্যালে চলো, চলো চলো, বিডেন কো ভোট করো, বিডেন কি জিত হো, উনকি হার হা”।

বৃহস্পতিবার গানের এই ভিডিও বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত হওয়ার পর বিনিতা ভুটোরিয়া জানিয়েছেন, গানটি যুদ্ধবিরোধী এবং ভারতীয়দের উদযাপিত করবে। যাতে তাঁরা নভেম্বর মাসে বিডেনকে ভোট দেওয়ার জন্য অনুপ্রানীত হন।

আর এটি হল দ্বিতীয় জাতীয় ভারতীয়-আমেরিকার ভোটের প্রচারের ভিডিও। যা ভুটোরিয়া দম্পতি সমস্ত দক্ষিণ-এশীয় এবং ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকানদের বিডেন এবং হ্যারিসকে সমর্থন করার জন্য একত্রিত করেছেন। কমল হ্যারিস হলেন, ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকার নাগরিক এবং তিনি হলেন প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মহিলা যিনি আমেরিকার একটি রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেত্রী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

এই বিষয়ে দক্ষিণ এশিয়ার ন্যাশনাল ডিরেক্টর এষা দেওয়ান জানিয়েছেন, মার্কিন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রচারের এই গানের ভিডিওটি ভারতীয় আমেরিকানদের বিডেন এবং সেনেটর হ্যারিসকে ভোট দিতে উৎসাহিত করবে। আর ওই গানের ভিডিওটিতে একজন অংশগ্রহণকারী হিসেবে তিনি যথেষ্ট গর্বিত বলেও জানান। কারণ, গানের মাধ্যমে নির্বাচনের সময় সঠিক বার্তা পাওয়া ভারতের দীর্ঘকালের ঐতিহ্য।

‘চ্যালে চলো’ গানটিতে কন্ঠ দিয়েছেন তিতলি বন্দোপাধ্যায়। এদিন তিনি বলেন, গানের মাধ্যমে আমেরিকার ভবিষ্যতের পক্ষে ভোট দেওয়ার বার্তাটি সমস্ত ভারতীয় আমেরিকানদের কাছে পৌঁছে দিতে পারায় তিনি খুবই গর্বিত এবং আপ্লুত।

এই ভিডিওটির কথা উল্লেখ করে ভুটোরিয়া আরও বলেন যে, “এটি আমেরিকান ভারতীয় সম্প্রদায়ের লোকদের আশা আকাঙ্খা এবং পরিবর্তনের দৃষ্টিকে অনুপ্রাণিত করবে”।

এদিকে টেক্সাস, মিশিগান, ফ্লোরিডা এবং পেনসিলভেনিয়া রাজ্যগুলিতে ছয় মিলিয়নেরও বেশি দক্ষিণ এশিয়ার ভোটার এবং ১.৩ মিলিয়ন ভারতীয়-আমেরিকান ভোটার রয়েছেন।

ভুটরিয়া দাবি করেছেন যে, ৮০ ভাগেরও বেশি দক্ষিণ এশীয়রা বিডেন-হ্যারিসকে সমর্থন করবেন।

তিনি আরও বলেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস দক্ষিণ এশীয় ভোটাররা ভাইস প্রেসিডেন্ট বিডেন এবং সিনেটর হ্যারিসকে আসন্ন নির্বাচনে বিজয়ী হতে সহায়তা করবেন।”

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here