Latest: Coronavirus made in a laboratory in Wuhan: ‘চিন আগে থেকেই জানত, উহানের ল্যাবেই তৈরি হয়েছে করোনাভাইরাস!’, দাবি চিনের বিজ্ঞানীর – chinese virologist claims covid-19 was made in govt-controlled wuhan lab, shares scientific proof

Latest: Coronavirus made in a laboratory in Wuhan: ‘চিন আগে থেকেই জানত, উহানের ল্যাবেই তৈরি হয়েছে করোনাভাইরাস!’, দাবি চিনের বিজ্ঞানীর – chinese virologist claims covid-19 was made in govt-controlled wuhan lab, shares scientific proof

হাইলাইটস

  • উহানের একটি ল্যাবরেটারিতেই নাকি এই ভাইরাস তৈরি করা হয়েছিল।
  • ডক্টর লি-মেঙ্গ ইয়ান হং কংয়ের স্কুল অব পাবলিক হেল্থের একজন বিজ্ঞানী হিসেবে কাজ করতেন বলে জানিয়েছেন।
  • এই একই দাবি নিয়ে এবার প্রকাশ্যে এলেন চিনেরই এক ভাইরোলজিস্ট তথা বিজ্ঞানী ডক্টর লি-মেঙ্গ ইয়ান নামে এক মহিলা।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় দশ মাস ধরে করোনাভাইরাসের আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে গোটা বিশ্ব। প্রতিদিন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। কিন্তু কোথা থেকে এই ভাইরাসের উৎপত্তি তা এখনও অজানা বিজ্ঞানী ও চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের কাছে। টিকা বা ওষুধ কবে বাজারে আসবে তা এখনও নিশ্চিত নয়। কিন্তু করোনাভাইরাস গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ার জন্য চিনের দিকে বার বার অভিযোগের আঙুল উঠেছে। যদিও অতিরিক্ত ছোঁয়াচে এই ভাইরাসের উৎস চিনের উহানের মাংসের বাজার বলেই প্রাথমিক ভাবে মনে করা হয়েছে। সেখানেই নাকি প্রথম কোভিড ১৯ ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছিল। যদিও কোনও তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি।

অনেক বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসকেরা আবার এই ভাইরাস মানুষের তৈরি করা বলেও সন্দেহ প্রকাশ করে চলেছেন দীর্ঘদিন ধরে। উহানের একটি ল্যাবরেটারিতেই নাকি এই ভাইরাস তৈরি করা হয়েছিল। সামুদ্রিক-খাবারের বাজারের কাছেই এই ল্যাবরেটারি অবস্থিত। এই একই দাবি নিয়ে এবার প্রকাশ্যে এলেন চিনেরই এক ভাইরোলজিস্ট তথা বিজ্ঞানী ডক্টর লি-মেঙ্গ ইয়ান নামে এক মহিলা। তাঁর দাবি, সরকারের অধীনে থাকা ল্যাবরেটারিতেই চিন করোনাভাইরাস তৈরি করেছে। একইসঙ্গে বৈজ্ঞানিক প্রমাণও শেয়ার করেছেন তিনি।

ডক্টর লি-মেঙ্গ ইয়ান হং কংয়ের স্কুল অব পাবলিক হেল্থের একজন বিজ্ঞানী হিসেবে কাজ করতেন বলে জানিয়েছেন। বর্তমানে তিনি আমেরিকায় আশ্রয় নিয়েছেন। ইয়ানের দাবি, তাঁর কাছে প্রমাণ রয়েছে, এই ভাইরাস কোনও পশু বাজার থেকে ছড়ায়নি, এটি চিনের উহান ল্যাব থেকেই ছড়িয়েছে। এবং এটি ল্যাবেই তৈরি করা হয়েছিল। আইটিভি নামে এক ব্রিটিশ চ্যানেলে এক স্বাক্ষাত্কার দিয়েছেন ইয়ান। তবে টিভি স্টুডিয়োতে যাননি, গোপন কোনও জায়গা থেকে তিনি এই স্বাক্ষাৎকার দিয়েছেন। সেখানে তিনি দাবি করেছেন, হং কংয়ে কাজ করার সময় এই ভাইরাস সম্পর্কে তিনি মুখ খোলেন। এমন কি চিন সরকার প্রকাশ্যে এই অতিমারির কথা স্বীকার করার আগে থেকেই ভাইরাস সম্পর্কে সব জানত।

গত ফেব্রুয়ারিতে চিন দাবি করেছিল যে, করোনাভাইরাস প্রকৃতি থেকে তৈরি হয়েছে। ইয়ান জানিয়েছেন, তিনি উহান থেকে যে তথ্য পেয়েছিলেন, তা গোটা বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে চান। এমন কী চিনে থাকার সময় তাঁকে মুখ বন্ধ রাখতে বলা হয়েছিল, যদি না রাখেন তাহলে তাঁকে প্রাণে মারারও হুমকি দেওয়া হয়েছিল। স্বাক্ষাৎকারটি ইউটিউবে আপলোড করা হয়েছে। বাধ্য হয়ে তিনি পালিয়ে এসেছেন আমেরিকায়। এখন গোটা বিশ্বের সামনে বিষয়টি তুলে ধরতে চান।

আরও পড়ুন: বাদল অধিবেশনের প্রথম দিনেই কোভিড পজিটিভ ১৭ সাংসদ, BJP-রই ১২

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট
এখানে ক্লিক করুন।

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here