Latest: Imran Khan: ‘গণধর্ষকদের নপুংসক করে দেওয়া হবে’! চাপের মুখে বেমক্কা ঘোষণা ইমরান খানের – gang-rape case prompts pakistan pm imran khan to call for chemical castration

Latest: Imran Khan: ‘গণধর্ষকদের নপুংসক করে দেওয়া হবে’! চাপের মুখে বেমক্কা ঘোষণা ইমরান খানের – gang-rape case prompts pakistan pm imran khan to call for chemical castration

হাইলাইটস

  • আমি পড়েছি প্রচুর দেশেই ধর্ষকদের শাস্তি হিসেবে নপুংসক করে দেওয়া হয়।
  • আমি মনে করি আমাদের এখানেও তাই করা উচিত।
  • শক্তিশালী ওষুধের ব্যবহারের মাধ্যমে লিঙ্গচ্ছেদের পক্ষে রয়েছে আমার মত

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র কিছুদিন আগের ঘটনা। পাকিস্তানের পূর্ব লাহোরের রাস্তায় এক মহিলা একটু রাতের দিকেই তাঁর দুই সন্তানকে নিয়ে বেরিয়েছিলেন। চালকের আসনে ছিলেন ওই মহিলাই। তাঁর দুই সন্তানের সামনেই তাঁকে গণধর্ষণ করে খুন করা হয়। এতেও ক্ষান্ত হয়নি। পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেওয়া হয় গাড়িটিও। বলা হয়েছিল, এত রাতে কেন এক মহিলা একা এভাবে বাচ্চাদের নিয়ে বেরোবে?

একপুলিশ আধিকারিক বলেই ফেলেন কেন কোনও পুরুষসঙ্গীকে সঙ্গে নিয়ে বেরোননি ওই মহিলা। এরপরই শয়ে শয়ে মহিলা নামেন পাকিস্তানের রাস্তায়। শুরু হয় বিক্ষোভ প্রতিবাদ। পাক নাগরিকদের দাবি, জনসমক্ষেই অপরাধীদের ফাঁসি দেওয়া হোক। কিংবা তাদের মাথা কেটে নেওয়া হোক। এই ধর্ষণের অন্যতম অভিযুক্ত দুজনের মধ্যে থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে ইতোমধ্যেই। তার নাম শফিকত আলী।

ডিনিএ- পরীক্ষার রিপোর্ট আসার পর তিনিই যে অপরাধী এ বিষয়ে যেমন নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে তেমনই অপরাধী জনসমক্ষে তার অপরাধও স্বীকার করে নিয়েছে। কিন্তু থামছে না বিক্ষোভের আঁচ। ক্রমশই সেই পারদ চড়ছে। সোমবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জানিয়েছেন, যারা গণধর্ষক হিসেবে ইতোমধ্যে চিহ্নিত তাদের সকলকেই ওষুধ প্রয়োগে নপুংসক (chemical castration) করে দেওয়া হবে। যাতে চিরকালের মতো কামনা, বাসনা দূর হয়ে যায়। সম্প্রতি সেখানকার একটি টিভি চ্যানেলে ইমরান খান বলেছেন,’আমি পড়েছি প্রচুর দেশেই ধর্ষকদের শাস্তি হিসেবে নপুংসক করে দেওয়া হয়। আমি মনে করি আমাদের এখানেও তাই করা উচিত। শক্তিশালী ওষুধের ব্যবহারের মাধ্যমে লিঙ্গচ্ছেদের পক্ষে রয়েছে আমার মত’।

আরও পড়ুন
লাদাখের পর এবার অরুণাচলেও চোখ রাঙাচ্ছে চিনা ফৌজ? প্রস্তুত হচ্ছে ভারতীয় সেনা

লাহোরের পুলিশ প্রধান উমর শেখ, পাকিস্তানের মেয়েদের দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক বলেছিলেন, সোমবার তাঁকে প্রকাশ্যে ক্ষমাও চাইতে হয় বিক্ষোভকারীদের কাছে। সেখানকার বিখ্যাত আইনজীবী ওসামা মালিক বলেন, ‘এরকম দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হলে নাবালিকা ধর্ষণের অভিযোগ খানিক কমবে’। এছাড়াও তিনি বলেন, পাকিস্তানের পুলিশও এই যৌন হিংসা বৃদ্ধির জন্য অনেকখানি দায়ী। যথাযথ ফরেন্সিক রিপোর্টের দাবী জানিয়ে মালিক বলেন, এমন নৃশংস ঘটনায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। যাতে কেউ কোনওদিন এমন অপরাধের কথা মাথাতেও না আনে।

খবরটি ইংরেজিতে পড়ুন

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন

Source link

Follow and like us:
0
20

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here